advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

স্ত্রীকে নকল সরবরাহ এএসআইকে এক মাসের কারাদ-

পটুয়াখালী প্রতিনিধি
২৫ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৫ মে ২০১৯ ০১:০৪
advertisement

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় স্ত্রীকে নকল সরবরাহ করতে গিয়ে ধরা খেয়েছেন পুলিশের এক এএসআই। শুধু ধরা নয়, তাকে এক মাসের কারাদ- দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দ-প্রাপ্ত উপপরিদর্শক (এএসআই) মাহাবুবুর রহমান পটুয়াখালী সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কার্যালয়ে কর্মরত। গতকাল শুক্রবার দুপুরে শহরের রশিদ কিশালয় বিদ্যায়তন পরীক্ষাকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সূত্র জানায়, গতকাল পটুয়াখালীতে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষার আসন ব্যবস্থাপনা করে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন। পটুয়াখালী সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কার্যালয়ে

কর্মরত মাহাবুবুর রহমানের স্ত্রীর পরীক্ষার আসন পরে রশিদ কিশালয় বিদ্যায়তনে। পরীক্ষা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পর পুলিশের পোশাক পরা অবস্থায় মাহাবুব তার স্ত্রীকে উত্তরপত্র সরবরাহ করেন। এ সময় ওই কক্ষে দায়িত্বরত পটুয়াখালী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবার সমানে পড়লে তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন তিনি।

ঘটনার খবর পেয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নুরুল হাফিজ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) জিয়াউর রহমান এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল মো. জসিম উদ্দিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। পরে নকল সরবরাহ করার দায়ে পুলিশের এএসআই মাহাবুবকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদ- প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবা।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুল হাফিজ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা। এতে মাহাবুব নামে পুলিশের এক ব্যক্তি এক পরীক্ষার্থীকে নকল সরবরাহ করছিল। তাই ভ্রাম্যমাণ আদলতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবা তাকে এক মাসের বিনাশ্রম দ- দিয়েছেন। তবে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি পুলিশের কোনো কর্মকর্তা।