advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অমিত শাহকে এবার সরকারে দেখা যাবে?

আন্তর্জতিক ডেস্ক
২৫ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৫ মে ২০১৯ ০১:০৪
advertisement

ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) বিশাল বিজয়ে নরেন্দ্র মোদি আবার প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন। কিন্তু এই সাফল্যের নেপথ্যের মূল কারিগর অমিত শাহ। দলটির সর্বভারতীয় সভাপ্রধান এবং বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের চেয়ারপারসন। তার সাফল্যে এমনকি বিরোধী শিবিরও প্রশংসা করছে। কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি বলেছেন, কংগ্রেসের একজন ‘অমিত শাহ’ দরকার।

এই অমিত শাহকে এবার সম্ভবত দলের নেতৃত্ব ছাড়তে হবে। বলা ভালো, ছাড়তে অনুরোধ করতে পারে বিজেপি। এনডিটিভি জানিয়েছে, মোদির অন্যতম বিশ্বাসযোগ্য এই নেতাকে মন্ত্রিসভায় গুরুত্বপূর্ণ পদে আনা হতে পারে। তাই সভাপ্রধানের গুরুদায়িত্ব আর তাকে সামলাতে হবে না।

লোকসভা নির্বাচনে গুজরাটের গান্ধীনগর থেকে অমিত শাহের প্রার্থী হওয়ার পর থেকেই দলের ভেতরে নানা সমালোচনা শুরু হয় তার বিরুদ্ধে। কিন্তু এখন তা থেমে গেছে। তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বা প্রতিরক্ষামন্ত্রী হতে পারেন।

সূত্রের বরাতে এনডিটিভি অবশ্য বলছে, যোগ্য উত্তরসূরি পাওয়ার পরই অমিত শাহকে সভাপ্রধানের পদ থেকে সরিয়ে মন্ত্রিসভায় স্থান দেওয়া হবে। মোদি যখন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন, সে সময় সেখানকার অন্যতম ক্ষমতাশালী মন্ত্রী ছিলেন অমিত শাহ। রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দপ্তর ছাড়াও একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর ছিল তার অধীনে। ২০১৪ সালের নির্বাচনে কেন্দ্রীয়ভাবে তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল উত্তরপ্রদেশের।