advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কংগ্রেসের হারার দলে সাবেক ৮ মুখ্যমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২৫ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৫ মে ২০১৯ ০১:০৪
advertisement

ভারতের শতাব্দীর প্রাচীণতম দল কংগ্রেসের ভরাডুবি হয়েছে টানা দ্বিতীয়বারের মতো। এই হারার দলে আছেন দলটির শীর্ষ নেতারাও। এর মধ্যে সাবেক আট মুখ্যমন্ত্রীও নিজেদের আসনে পরাজয়ের গ্লানি নিয়েছেন।

দিল্লির তিনবারের মুখ্যমন্ত্রী শিলা দিক্ষিত এবার দিল্লি উত্তর আসনে বিজেপি নেতা মনোজ তিওয়ারির কাছে হেরে গেছেন। দিল্লি বিজেপির সভাপতি মনোজ ৭ লাখ ৮৭ হাজার ৭৯৯ (প্রায় ৫৪ শতাংশ) ভোট পেয়েছেন। শিলা পেয়েছেন ৪ লাখ ২১ হাজার ৬৯৭ (প্রায় ২৯ শতাংশ) ভোট। ওই আসনে আম আদমি পার্টির দিলিপ পান্ডে ১ লাখ ৯০ হাজার ৮৬৫ ভোট নিয়ে তিন নম্বরে আছেন।

উত্তরাখন্ডের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী হরিশ রাওয়াত নৈনিতাল-উধামসিং নগর আসনে রাজ্য বিজেপির সভাপতি অজয় ভাটের কাছে তিন লাখের বেশি ভোটে হেরে গেছেন।

হরিয়ানার দুইবারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ভুপিন্দর সিং হোড়া শনিপাত আসনে বিজেপির রমেশ চন্দর কৌশিকের কাছে ১ লাখ ৬৪ হাজার ৮৬৪ ভোটে হেরে গেছেন। হরিয়ানার অভিজ্ঞ এ নেতার হারই রাজ্যে কংগ্রেসের ভরাডুবির কথা বলে দিচ্ছে।

বিজেপির বিতর্কিত নেত্রী ও বোমা হামলায় অভিযুক্ত প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরের কাছে বড় ব্যবধানে হেরেছেন মধ্যপ্রদেশের সাবেক কংগ্রেস নেতা দ্বিগি¦জয় সিং। ভোপালে আসনে প্রজ্ঞা সাড়ে আট লাখের বেশি ভোট পেয়েছেন, দিগি¦জয় পেয়েছেন পাঁচ লাখ ভোট। সোলাপুর আসনে বিজেপি প্রার্থী জয় সিদ্ধেশ্বর শিভাচার্যের কাছে দেড় লাখের বেশি ভোটের ব্যবধানে হেরে গেছেন মহারাষ্ট্রের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী কংগ্রেস নেতা সুশিল কুমার সিন্দে।

মেঘালয়ের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা তুরা আসনে ন্যাশনাল পিপলস পার্টির আগাথা কে সাংমার কাছে হেরে গেছেন। কর্নাটকের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী কংগ্রেস নেতা ভিরাপ্পা মইলি চিকবল্লাপুর আসেন বিজেপির বিএ বাচে গৌড়ার কাছে ১ লাখ ৮২ হাজারের বেশি ভোটের ব্যবধানে হেরে গেছেন। এ ছাড়া মহারাষ্ট্রের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী অশোক চাভানও হেরে গেছেন।