advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পদত্যাগের প্রস্তাব রাহুলের, নাকচ করলো ওয়ার্কিং কমিটি

২৫ মে ২০১৯ ১৩:৫৫
আপডেট: ২৫ মে ২০১৯ ১৩:৫৫

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের গো-হারা হেরে যাওয়ার পর কংগ্রেসের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে ইস্তফা দিতে চাইলেন দলের সভাপতি রাহুল গান্ধী। কিন্তু তার ইস্তফাপত্র নিতে রাজি হয়নি ওয়ার্কিং কমিটি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, আজ শনিবার নয়াদিল্লিতে স্থানীয় সময় সকাল ১১টার দিকে কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।  সেখানেই কমিটির সদস্যদের উপস্থিতিতে সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার প্রস্তাব দেন রাহুল। তার মুখকে সামনে রেখে ভোটে লড়াই করেছিল শতাব্দী প্রাচীন দলটি। কিন্তু মোদির সামনে টিকতেই পারেননি ৪৮ বছরের এই নেতা।  রাহুল পদত্যাগের ইচ্ছাপ্রকাশের পর তাকে বিরত করেন কংগ্রেস নেতারা।  সভাপতি হিসেবে রাহুলকে কাজ চালিয়ে যাওয়ার অনুরোধ করেন তারা।

advertisement

সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদির জোটের সামনে খুব বাজেভাবে হেরেছে কংগ্রেস। ৫৪২টি আসনের মধ্যে মোদির এনডিএ জোট যেখানে পেয়েছে ৩৫২টি আসন, সেখানে কংগ্রেস পেয়েছে মাত্র ৯১ আসন।  

ফল প্রকাশের দুদিন পর কংগ্রেসের বৈঠক (ওয়ার্কিং কমিটি) ভরাডুবির পর্যালোচনা শুরু করেছে।  যোগ দিয়েছেন সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, রাজ্যসভার দলনেতা গুলাম নবি আজাদ, মল্লিকার্জুন খাড়গে ও পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিংরা।  নির্বাচনে হার নিয়ে কাঁটাছেড়া চলছে বৈঠকে।

নরেন্দ্র মোদির সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েও কেন নির্বাচনে কাঙ্ক্ষিত ফল মিলল না, তা নিয়ে চলছে আলোচনা।

মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড় ও রাজস্থানে মাসখানেক আগে বিধানসভা নির্বাচনে জেতার পরও লোকসভায় কংগ্রেসের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন ভোটাররা। এ নিয়েও এদিন ওয়ার্কিং কমিটিতে আলোচনা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে নির্বাচনে ভরাডুবির শতভাগ দায় নিজের ঘাড়ে নিয়েছেন কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল। নিজের পুরোনো আমেথি আসনটিও হারিয়ে ফেলেন বিজেপি নেত্রী স্মৃতি ইরানির কাছে।  এর পরই গুঞ্জন উঠেছে, পরাজয় মেনে নিতে না পেরে পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন রাহুল।