advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মেঘগুলো গা ছুঁয়ে ভিজিয়ে দিয়ে যায়

সাবরিনা পড়শী
২৫ মে ২০১৯ ১৫:৫১ | আপডেট: ২৫ মে ২০১৯ ১৬:৪৬

গানের সুবাদে বিশ্বের বহু দেশে আমার যাওয়ার সুযোগ হয়েছে। আর আমি একটু বেশিই ভ্রমণপিপাসু। তাই ঘুরতে যাওয়ার সুযোগ হাতছাড়া করতে চাই না। যেকোনো নতুন দেশে পা রাখার আগে জানার চেষ্টা করি, সেখানকার সম্পর্কে। এটা রীতিমতো আমার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। এরপর খোঁজ নেওয়া হয় সেখানকার ঐতিহ্যবাহী স্থান, খাবার, সংস্কৃতি ও অন্যান্য বিষয়ে। সব কিছু জেনে ভ্রমণের আনন্দটা উপভোগ করার চেষ্টা করি।

প্রথম দেশের বাইরে যাওয়া হয় বাহরাইনে। এটা ২০০৯ সালের ঘটনা। এরপর বহু দেশে গিয়েছি। তবে প্রথম বিদেশ ভ্রমণের স্মৃতিটা সারা জীবন মনে থাকবে। ইউরোপ-আমেরিকা ভ্রমণের স্মৃতিগুলো বেশ মজার। ইউরোপের প্রতিটি দেশ বেশ গোছানো। রাস্তাঘাট, বাড়িঘরগুলো অনেক সুন্দর। মানুষের মধ্যেও দেশপ্রেম অনেক বেশি।

পৃথিবীর স্বর্গরাজ্য বলা হয় সুইজারল্যান্ডকে। দেশটি আসলেই স্বর্গের মতো সুন্দর। আমার দেখা সুন্দর দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম এটি। কয়েক বছর আগে এই দেশটিতে যাওয়ার সুযোগ আমার হয়েছে। বরফ-ঢাকা পাহাড় আর সবুজের সমারোহ এমন অপরূপ সৌন্দর্য পৃথিবীর আর কোথাও পাওয়া যাবে কি-না, আমার জানা নেই। দেশটি অপরূপ সৌন্দর্যে ঘেরা। শহরের স্থাপত্যে রয়েছে আভিজাত্য ও শৈল্পিক নিদর্শন। ঘরের জানালায় বাহারি রঙের ফুলের ঝাড় ঝুলতে দেখা যায়। শহরজুড়ে অসংখ্য ফুলের বাগান। আর মানুষগুলোও অসম্ভব ভালো। গানের সুবাদে প্রায় ১৫ দিন সেখানে থাকা হয়েছিল। হাড় কাঁপানো শীতের মধ্যেও আমরা দেশটির নানা জায়গায় ঘুরতে গিয়েছিলাম। খোলা স্থানে দাঁড়ালে মেঘগুলো গা ছুঁয়ে ভিজিয়ে দিয়ে যায়। সুইজারল্যান্ড ঘুরে মনে হলো, কোনো এক স্বপ্নের দেশে চলে এসেছি। স্বপ্নের দেশে অনেক মজা করেছি।

সাবরিনা পড়শী, কণ্ঠশিল্পী