advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

লিচু ও জামার আবদার মেটাতে না পেরে দুই মেয়েকে হত্যা!

নরসিংদী প্রতিনিধি
২৬ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৬ মে ২০১৯ ০৯:১৭

লঞ্চঘাটের পাশেই দোকানে সাজিয়ে রাখা হয়েছে টসটসে লিচু। ছোট মেয়ে বায়না ধরে লিচু খাওয়ার। কিন্তু পকেটে পর্যাপ্ত টাকা না থাকায় বাবার পক্ষে মেয়ের আবদার মেটানো সম্ভব হয় না। এদিকে ঈদও সমাগত। বড় মেয়ে তাগাদা দেয় নতুন জামা-কাপড় কেনার। সাধ্য না থাকার যন্ত্রণা গ্রাস করে তাকে। পারিবারিক দারিদ্র্য, মেয়েদের লেখাপড়ার খরচ দিতে না পারা, তাদের চাওয়া পূরণ করতে না পারার হতাশা, সবকিছু মিলিয়ে মানসিক হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন তিনি। একপর্যায়ে নিজ হাতে গলাটিপে হত্যা করেন প্রিয় দুই মেয়েকে!

পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী, জিজ্ঞাসাবাদে এমন তথ্যই জানিয়েছেন মনোহরদী উপজেলার পূর্ব চালাকচর গ্রামের শফিকুল ইসলাম নামে ওই বাবা। এর আগে নরসিংদী শহরের কাউরিয়াপাড়া নতুন লঞ্চঘাটের শৌচাগার থেকে বৃহস্পতিবার নুসরাত জাহান তাইন (১০) ও তানিশা তাইয়েবা (৪) নামে ওই দুই শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নরসিংদী পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সম্মেলনকক্ষে শনিবার দুপুর ২টার দিকে এ বিষয়ে এক প্রেস ব্রিফিং করা হয়।

advertisement

এতে পুলিশ পুলিশ সুপার (এসপি) মিরাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, নিহত দুই শিশুর বাবা শফিকুল ইসলাম ও তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তিনি (শফিকুল) আসলে মানসিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। বৃহস্পতিবার তার দুই মেয়েকে নিয়ে মনোহরদী থেকে শিবপুরে ডাক্তার দেখাতে নিয়ে আসেন। সেখানে ডাক্তার না থাকায় নরসিংদী সদরে ঘুরতে যান মেয়েদের নিয়ে। পরে বড় মেয়ের আবদার অনুযায়ী নরসিংদী কাউরিয়াপাড়া নতুন লঞ্চঘাট দেখতে আসেন তারা। এসপি আরও বলেন, তার কথাবার্তায় নানা রকমের অসঙ্গতি দেখেছি।

তিনি জানিয়েছেন, পারিবারিক দারিদ্র্য, মেয়েদের লেখাপড়ার খরচ না দিতে পারা, আবদার অনুযায়ী মেয়েদের নতুন জামা দিতে না পারা, সবকিছু মিলিয়ে মানসিক হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। প্রথমে ছোট মেয়েকে লঞ্চঘাটের একটি শৌচাগারে নিয়ে গিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করেন। পরে বড় মেয়েকেও একইভাবে হত্যা করে ফেলে রেখে চলে যান। এর পর ঘটনাস্থলে এসে নিজের সন্তানদের নিজ হাতে হত্যার কথা স্বীকার করেন। তাকে আটক করা হয়। আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। নরসিংদী কাউরিয়াপাড়া নতুন লঞ্চঘাটের শৌচাগারের ভেতর থেকে শুক্রবার রাত ৯টার দিকে দুই কন্যাশিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।