advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ফালানীর আক্ষেপ ‘যদি মরতে পারতাম

গাজীপুর সদর প্রতিনিধি
২৬ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৫ মে ২০১৯ ২৩:৫৭
advertisement

ফালানী বেগম (৭০)। ভাগ্য বিড়ম্বিত এক নারীর নাম। গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মুলাইদ গ্রামের আবুল হোসেনের স্ত্রী। স্বামী মারা গেছেন দুই যুগ আগে। এর পর অকালেই পরপারের যাত্রী হয়েছেন দুই ছেলে। হতদরিদ্র পরিবারের এই ফালানী বিয়ের পর থেকেই অন্যের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। কিন্তু গত এক বছর আগে সড়ক পার হতে গিয়ে দুর্ঘটনায় চলার শক্তি হারিয়ে ফেলে অসহায় জীবনযাপন করছেন তিনি। দুহাতে ভর দিয়ে শরীর টেনে চলাচল করতে হয় তাকে। অনেক কষ্টের এই জীবন নিয়ে ফালানীর আক্ষেপÑ ‘যদি মরতে পারতাম।’

স্থানীয়রা জানান, মুলাইদ গ্রামের হাজী ছোট কলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশেই ফালানী বেগমের বসবাস। স্বামী-সন্তান মারা যাওযার পর নাতিনদের আশ্রয়ে আছেন তিনি। তবে হতদরিদ্র নাতিদের পরিবারেও তিনি বোঝা। তাই ক্ষুধা নিবারণের তাগিদে প্রতিদিন বাড়ি থেকে সড়কে বেরিয়ে পড়েন। পথচারীদের দেওয়া সহায়তায় কোনোমতে দিন যাচ্ছে তার। তবে চিকিৎসার অভাবে দিন দিন শক্তি হারাচ্ছেন।

হাজী ছোট কলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোকছেদ মোল্লাহ সাদ্দাম জানান, পরিশ্রমী এই নারী সুস্থ থাকার সময় একটি দিনের জন্যও বিশ্রাম নেননি। এখন অসুস্থ ও অসহায়। একজন অসহায় নারীকে এমনভাবে সড়কে হাতে ভর করে শরীর টেনে নিয়ে চলতে দেখে খুব খারাপ লাগে। একটি হুইল চেয়ার তার এই কষ্ট কমাতে পারে।

ফালানী বেগমের নাতি সুজন মিয়া জানান, তাদের সহায়-সম্বল নেই, নিজেরাই ঠিকমতো চলতে পারেন না। এর পর দাদি সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হলে অনেক কষ্ট করে চিকিৎসা করিয়েছেন। এখন আর ওষুধ কিনে দিতে পারেন না। অন্তত তার জন্য একটি হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা হলে কোনোমতে তিনি চলতে পারবেন।

এ বিষয়ে শ্রীপুর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, সরকারি সহায়তা দেওয়ার জন্য ফালানীর নাম তালিকাবদ্ধ করা হয়েছে। তার জন্য একটি হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা করা হবে।

advertisement