advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

১ লাখ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

টেকনাফ প্রতিনিধি
২৬ মে ২০১৯ ২১:৪৭ | আপডেট: ২৬ মে ২০১৯ ২১:৪৭
advertisement

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় এক লাখ পিস ইয়াবা ও নগদ ৩ লাখ টাকাসহ আবদুর আমিন (৩০) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। আজ রোববার ভোরে টেকনাফের পাহাড়ি এলাকার হাতিয়ারঘোনা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ইয়াবা ও টাকাসহ তাকে আটক করা হয়।

আটক মাদক ব্যবসায়ী কক্সবাজারের জুলিয়ার খুরোশ খুল গ্রামের বাসিন্দা।

এ অভিযানে নেতৃত্ব দিয়েছেন র‌্যাব-১৫ অধিনায়ক উইয়িং কমান্ডার আজিজ আহমেদ, উপঅধিনায়ক মেজর রবিউল হাসান ও টেকনাফ ক্যাম্প কমান্ডার লেফটেন্যান্ট মির্জা শাহেদ মাহতাব।

এ বিষয়ে র‌্যাব-১৫-এর টেকনাফ ক্যাম্প কমান্ডার লেফটেন্যান্ট মির্জা শাহেদ মাহতাব বলেন, ‘মিয়ানমার থেকে একটি ইয়াবার বড় চালান এনে রোববার ভোরে টেকনাফের হাতিয়ারঘোনা পাহাড়ি এলাকার বাসিন্দা মুজিবুর রহমানের বাড়িতে ইয়াবার চালানটি পাচারের জন্য মজুদ করছে, এমন গোপন সংবাদের খবর পেয়ে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল ওই এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ির মালিক ইয়াবা ব্যবসায়ী মুজিবুর রহমান পালিয়ে গেলেও আবদুল আমিন নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। পরে আটকের স্বীকারোক্তিমতে সিএনজিতে তল্লাশি চালিয়ে পলিথিন মোড়ানো এক লাখ পিস ইয়াবা ও নগদ তিন লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ইয়াবা পাচারের অভিযোগে সিএনজিও জব্দ করা হয়েছে।’

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘আটক মাদক ব্যবসায়ী স্বীকার করে দীর্ঘ দিন ধরে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীকে ফাঁকি দিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার বড় চালান এনে সারা দেশে পাচার করছে। এ ঘটনায় পালিয়ে যাওয়া মাদক ব্যবসায়ী মুজিবুর রহমানকে গ্রেপ্তারের অভিযান চলছে। র‌্যাব মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। ফলে কোনো মাদক ব্যবসায়ীদের ছাড় নেই। এখনো যেসব ইয়াবা ব্যবসায়ী মাদক ব্যবসায় চালিয়ে যাচ্ছেন, সময় এসেছে পত্রিম রমজান মাসে মাদক ছেড়ে দিয়ে ভালো পথে চলে আসুন। না হলে কঠোর পরিণতি হবে।’

ইয়াবাসহ আটক ব্যক্তির বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় মামলা প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান মির্জা শাহেদ মাহতাব।

advertisement