advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

উত্তরবঙ্গে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে নিহত ৩

অনলাইন ডেস্ক
৯ জুন ২০১৯ ১০:৩১ | আপডেট: ৯ জুন ২০১৯ ১০:৩১

ভারতের উত্তরবঙ্গে তৃণমূল-বিজেপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার ২৪ পরগনার সন্দেশখালি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে দুজন বিজেপি এবং এক তৃণমূলকর্মী বলে জানা গেছে। এ সময় দুই দলের একাধিক কর্মী আহত হয়েছেন।

advertisement

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, শনিবার বিকেল থেকেই উত্তপ্ত ছিলো সন্দেশখালির নেজাটে। জেলা তৃণমূলের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের অভিযোগ, গতকাল ওই এলাকায় দলের বুথ স্তরের একটি বৈঠক ছিল। এই বৈঠকের পর তৃণমূলের একটি মিছিলে হামলা চালায় স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা।

তৃণমূল কর্মী কায়ুম মোল্লাকে বিজেপি আশ্রিত দুর্বৃত্তরা গুলি করে খুন করে বলেও অভিযোগ করেন জ্যোতিপ্রিয়।

তবে তৃণমূলের এই দাবি উড়িয়ে দিয়ে বিজেপির পাল্টা অভিযোগ, নেজাটে তৃণমূলের সভার পর ওই এলাকার বিজেপির পতাকা খুলতে শুরু করে তৃণমূল কর্মীরা। আর এই পতাকা খোলা নিয়েই দুই দলের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। স্থানীয় বিজেপি নেতাদের দাবি, তাদের দুই কর্মীকে গুলি করে খুন করা হয়েছে। নিহতরা হলেন, প্রদীপ মণ্ডল (৩৬) এবং সুকান্ত মণ্ডল (২৮)।  দেবদাস মণ্ডল নামে এক বিজেপি কর্মী এখনো নিখোঁজ বলে দাবি করছে বিজেপি।

এ ঘটনায় সরাসরি তৃণমূল নেত্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। পাশাপাশি পুরো বিষয়টি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে জানানো হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সংঘর্ষের খবর পেয়ে পরে বসিরহাট থানা থেকে পুলিশের একটি বড় দল ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিকে, এ ঘটনায় টুইট করে নিন্দা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ও। খুব দ্রুতই তৃণমূল সরকারকে বাংলার মানুষ শেষ করবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।