advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পরকীয়ার অভিযোগে শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা
১২ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ জুন ২০১৯ ০০:১০
advertisement

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার অভিযোগে এক যুবকের শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছেন এক স্বামী। সোমবার রাতে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার নিমসার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মোসলেম (৫৫) মিয়া নামে ওই স্বামীকে গতকাল মঙ্গলবার পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তিনি সদর উপজেলার সৈয়দপুর গ্রামের সোনা মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, মোসলেম মিয়া তার স্ত্রী আমেনা বেগমের সঙ্গে পরকীয়ার অভিযোগ এনে জহিরুল ইসলাম নামে ওই যুবকের গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। আহত জহিরুল ইসলামকে এলাকাবাসী কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। তিনি নিমসার এলাকার রওশন আলির ছেলে।

দেবপুর ফাঁড়ি পুলিশের আইসি ইন্সপেক্টর আবু ইউসুফ ফসিউজ্জামান জানান, আগুনে জহিরুল ইসলামের শরীরের ৫০ ভাগ ঝলসে গিয়েছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। এ ঘটনায় আসামি মোসলেমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

‘বন্দুকযুদ্ধে মাদককারবারি’ নিহত

এদিকে কুমিল্লায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে বাপ্পী ওরফে রাজিব (২৬) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশ বলছে, তিনি মাদককারবারি ছিলেন। তার বিরুদ্ধে থানায় মাদক আইনে ১১টির বেশি মামলা রয়েছে।

সদর দক্ষিণ উপজেলার উত্তর বিজয়পুর এলাকায় হোসেনপুর-লালমতি সড়কের মিল গেটের সামনে গতকাল সোমবার গভীর রাতে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে। নিহত বাপ্পী সদর দক্ষিণ উপজেলার উত্তর রামপুর এলাকার মৃত দেলোয়ার হোসেন দেলুর ছেলে। ঘটনাস্থল থেকে একটি ক্রিজ, একটি রামদা ও ১২০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, সোমবার রাত আড়াইটার দিকে উত্তর বিজয়পুর এলাকায় মাদক উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করে সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদককারবারি বাপ্পী ও তার সহযোগীরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে বাপ্পী গুলিবিব্ধ হয়ে আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সদর দক্ষিণ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কমল কৃষ্ণ ধর জানান, নিহত বাপ্পী পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদককারবারি। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে থানায় ১১টির বেশি মামলা রয়েছে।

advertisement