advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মৃত্যুদণ্ডে ব্যবহৃত ৩১৮ স্থান চিহ্নিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১২ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ জুন ২০১৯ ১৪:০২
advertisement

উত্তর কোরিয়ার সরকার জনসম্মুখে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে এমন ৩১৮টি স্থান চিহ্নিত করেছে দেশটির একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। উত্তর কোরিয়ার নাগরিকদের সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আইনবিষয়ক প্রতিষ্ঠানটি। খবর বিবিসি।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের চার বছর সময়কালের মধ্যে ৬১০ জনের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, গরু চুরি, দক্ষিণ কোরিয়ার টেলিভিশন দেখার মতো কারণেও মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

অধিকারবিষয়ক প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়া সরকার সাধারণত মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের জন্য নদীর ধার, উন্মুক্ত মাঠ, বাজার, স্কুল, খেলার মাঠ বেছে নেয়। এ ছাড়া কোনো কোনো ক্ষেত্রে জেলের অভ্যন্তরেও অনেকের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়ে থাকে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, হাজার হাজার মানুষের সামনে অনেক মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। এমনকি যার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়, তার পরিবারের সদস্যকেও এ ঘটনা দেখতে বাধ্য করা হয়।

শুধু তা-ই নয়, শিশুদেরও এসব ঘটনার সাক্ষী হতে হয়। এ ছাড়া দণ্ডপ্রাপ্তদের মরদেহ খুব কম সময়ই তাদের পরিবারের হাতে দেওয়া হয়। প্রতিবেদনে যারা সাক্ষ্য দিয়েছেন তাদের মধ্যে একজন জানিয়েছেন, সবচেয়ে অল্পবয়সীদের মধ্যে সাত বছরের একজনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, এর আগেও উত্তর কোরিয়ার সরকারের বিরুদ্ধে বিতর্কিত হত্যাকাণ্ডের খবর পাওয়া গেছে।

২০১৩ সালে কিম জং উনের চাচাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। সেই সময় বলা হয়েছিল, তাকে কুকুর দিয়ে কামড়ানো হয়। এর পর একই সালে উত্তর কোরিয়ার গায়ক হাইওনকে সোং-ওলকে জনসম্মুখে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

advertisement