Paran Frooto
advertisement
Paran Frooto
advertisement
advertisement

খুবই হতাশ রোডস

মাইদুল আলম বাবু,ব্রিস্টল থেকে
১২ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ জুন ২০১৯ ০১:৫৩
advertisement

ক্রিকেট বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের কাছে হারের পর বাংলাদেশ চাপে পড়ে। ইংল্যান্ডের ম্যাচটিতে একেবারে উড়ে গেছে টাইগাররা। ফলে শ্রীলংকার ম্যাচটিতে জয় খুবই দরকার ছিল। বৃষ্টির বাধায় সেটা আর হয়নি। কাল ব্রিস্টলে বাংলাদেশ-শ্রীলংকা ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

ফলে ১ পয়েন্ট করে ভাগাভাগি করে দেওয়া হয় দুদলকে। ব্রিস্টলে এর আগে পাকিস্তান-শ্রীলংকার ম্যাচটিও কোনো বল গড়ানো ছাড়াই পরিত্যক্ত হয়েছিল। শ্রীলংকা ২টি পয়েন্ট পেয়েছে কোনো ম্যাচ না খেলে। তবে বাংলাদেশের কোচ স্টিভ রোডস ছেলেদের ওপর ভরসা রেখেছিলেন।

তিনি হয়তো ভেবেওছিলেন, শ্রীলংকার বিপক্ষে ম্যাচটি জিতে গেলে হয়তো সেমিফাইনালের আশা ভালোভাবে টিকিয়ে রাখা যেত। কিন্তু সেটা এখন ঝুঁকির মধ্যে পড়ে গেল। বাংলাদেশের হাতে আরও ৫টি ম্যাচ রয়েছে। তবে অনেক হিসাব-নিকাশ অপেক্ষা করছে বাংলাদেশের সামনে। ব্রিস্টলে ম্যাচটি কাল স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৫৭ মিনিটে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

এর পর বাংলাদেশের হয়ে কোচ স্টিভ রোডস এসেছিলেন সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে। রোডস বলেছেন, ‘হ্যাঁ অবশ্যই আমি খুব হতাশ। এই ম্যাচটিতে আমরা ২টি পয়েন্ট আশা করেছিলাম। সেটা আর পারলাম না। আমি জানি শ্রীলংকার জন্যও কাজটি কঠিন হয়ে গেছে। আমরা এখন ভাবব কী করা যায়। আমরা জয়ের কথাই ভেবেছিলাম। এখন আমরা পরের ম্যাচটি নিয়ে ভাবছি, যে ম্যাচটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে রয়েছে। সেই ম্যাচটি আমাদের জন্য অনেক কিছু।’ রোডসের চিন্তার আরও কারণ আছে।

টনটনে বাংলাদেশের ম্যাচটি রয়েছে ১৭ জুন। আর প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের প্রিয় প্রতিপক্ষ এই মুহূর্তে। বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ হয়েছিল। সেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে ফাইনাল জিতে নিয়েছিল বাংলাদেশ। প্রথমবার ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ের স্বাদ পায় সেবার টাইগাররা। রোডস বলেছেন, আমরা ওই ম্যাচটি নিয়ে ভাবছি এখন। আমাদের হাতে সময় রয়েছে। সাকিব আল হাসান ইংল্যান্ডের ম্যাচে চোট পেয়েছিলেন। তিনি গতকালের ম্যাচে অনিশ্চিত ছিলেন।

কোচ রোডস বলেছেন, সে এখন ভালোই আছে। আগামী ম্যাচে আমি তাকে পাব বলে আশা রাখি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার এই ইনজুরি হয়। সে লড়াই করেছে ইনজুরির সঙ্গে। ইংল্যান্ডের ম্যাচটিতে সমস্যা থাকা সত্ত্বেও ভালো খেলেছে সে। আমরা আশাবাদী এই সপ্তাহের মধ্যে ভালো খবর পাব। আর সে ক্ষেত্রে সে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচে খেলবে আশা রাখি। রোডস এ দেশের মানুষ।

গ্রীষ্মে এমন আবহাওয়ার সঙ্গে তিনি পরিচিত। তিনি বলেন, আপনি তো জানেন ইংলিশ আবহাওয়া কেমন। কখন বৃষ্টি আসবে কেউ বলতে পারে না। পৃথিবীর সবাই আমাকে জিজ্ঞেস করে। আমি জানি না আসলে। আমাদের এসব দেখে অভ্যাস হয়ে গেছে। কিন্তু এই টুর্নামেন্টটি অনেক বড়। আমাদের শুধু না, যারা এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করেছে তারাও দুশ্চিন্তায় পড়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ে বিশ্বকাপ শুরু করে বাংলাদেশ।

এর পর নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের কাছে হেরে যায় তারা। শ্রীলংকার ম্যাচটি তো ভেসেই গেল। বাংলাদেশ ৪ ম্যাচ থেকে ৩টি পয়েন্ট পেয়েছে। বিশ্বকাপের সেমিতে যাওয়া কঠিন হয়ে গেল। রোডস বলেছেন, ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলটি ভালো। এই দলে অনেকে ম্যাচ জয় করার ক্ষমতা রাখে। ওদের অ্যাটাক করার যোগ্যতা আছে। আমরা যেভাবে ইংল্যান্ডে খেলেছি সেটা নিয়ে অনেক খুশি।

বাংলাদেশ ভালোভাবে জানে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। ওসান থমাসও ভালো খেলোয়াড়। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কয়েকজন বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান রয়েছে। গেইল ও রাসেল একাই ম্যাচ শেষ করে দিতে পারে। রোডস বলেন, আমরা জানি ওদের ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যান আছে। এমনকি আন্দ্রে রাসেল সবচেয়ে বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান। খুবই দারুণ দল তাদের। রাসেল বল মারতেও পারে ভালো। এ ছাড়া বোলিংটাও ভালো। আমাদেরও ভালো খেলোয়াড় আছে। আমাদের যা আছে, তা নিয়েই আত্মবিশ্বাসী।

advertisement