advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দেশ থেকে অভিশপ্ত শিশুশ্রম বিলুপ্ত হচ্ছে

মুজিবুল হক চুন্নু,সভাপতি,শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি
১২ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ জুন ২০১৯ ০৯:৪১

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মুজিবুল হক চুন্নু তার বক্তব্যের শুরুতেই দৈনিক আমাদের সময় ও ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ এবং উপস্থিত অতিথিদের শুভেচ্ছা জানান।

সাবেক এই শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশ স্বাধীনের পর ৭২-৭৩ সালের দিকে এদেশে দারিদ্র্য এতই প্রকট ছিল যে তখন শিশুশ্রম নিয়ে কথা বলারই কোনো সুযোগ ছিল না। বঙ্গবন্ধুর সেই বাংলাদেশে আজ তার সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে দারিদ্র্য নেই বললেই চলে। অর্থনীতি রাজনীতি সবদিক দিয়েই এগিয়ে চলছে দেশ। আমরা উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় প্রবেশ করেছি। ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হবে বাংলাদেশ। সুতরাং এই দেশে অন্যান্য অর্থনৈতিক কর্মযজ্ঞের পাশাপাশি খুব অল্প সময়ের মধ্যে শিশুশ্রমও বন্ধ হবে। শিশুশ্রম বন্ধে আরও কীভাবে কাজ করা যায়, সে বিষয়ে সরকারকে তিনি পরামর্শ দেবেন বলেও আশ্বস্ত করেন।

advertisement

মুজিবুল হক বলেন, শিশুশ্রম বন্ধে সরকারের পাশাপাশি বহু বেসরকারি প্রতিষ্ঠান কাজ করে যাচ্ছে। এসব প্রতিষ্ঠান সত্যিকার অর্থেই কাজ করছে। ফলে এদেশ থেকে ধীরে ধীরে অভিশপ্ত শিশুশ্রম বিলুপ্ত হচ্ছে। হতাশার কিছু নেই। সরকার ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি যদি ব্যক্তিগত উদ্যোগ বাড়ানো যায়, তা হলে আগামী দিনের নেতৃত্ব যাদের হাতে উঠবে সেসব শিশুকে আমরা শ্রম থেকে ফিরিয়ে স্কুলে পাঠাতে পারব। বাংলাদেশে শিশুশ্রম নিয়ে বর্তমান সরকার বেশ তৎপর। পাশাপাশি শিশুদের ঝুঁকিপূর্ণ পেশা থেকে কীভাবে সরিয়ে নিয়ে আসা যায়, তা নিয়ে সরকার বিভিন্ন এনজিও সংস্থা র সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, শিশুশ্রম এবং শিশুদের নিয়ে কাজ করার জন্য প্রতিমন্ত্রী থাকার সময় ২২টা মন্ত্রণালয়কে নিয়ে একটা কমিটি গঠন করেছিলাম। আপনারা দেখবেন আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে বাংলাদেশে শিশুশ্রম একেবারেই থাকবে না। বর্তমানে যারা শ্রম মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে আছেন, তারা বিষয়টি নিয়ে আরও গভীরে কাজ করছেন।