advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ব্যক্তি পর্যায়ে সবাইকে সচেতন হতে হবে

অ্যারোমা দত্ত, সংসদ সদস্য ও সমাজকর্মী
১২ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ জুন ২০১৯ ০০:৪৭
advertisement

সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি ও সমাজকর্মী অ্যারোমা দত্ত বলেন, কেবল সরকারকে দোষারোপ করলে হবে না, শিশুশ্রম বন্ধে ব্যক্তি পর্যায়েও সবাইকে সচেতন হতে হবে। তিনি বলেন, রাষ্ট্র তার কাজ পরিকল্পনা অনুযায়ী করে যাচ্ছে। সরকার প্রয়োজনীয় আইন ও নীতিমালা করেছে। অথচ আমরা কি পেরেছি শিশুশ্রম বন্ধে সচেতন হতে? আমরা যারা সরকারের সমালোচনা করছি, তারাই কিন্তু চারপাশের চলমান শিশুশ্রমের কোনো প্রতিবাদ করছি না। নিজের ঘরেও শিশু গৃহকর্মীকে দিয়ে হাড়ভাঙা কাজ করাচ্ছি।

অ্যারোমা দত্ত যে বাড়িতে বসবাস করেন, গৃহকর্মে নিযুক্ত শিশুদের প্রতি সে বাড়ির বাসিন্দাদের নির্মম অবহেলার কথা উল্লেখ করে বলেন, বড় বড় স্কুলব্যাগ গৃহকর্মীদের কাঁধে ঝুলিয়ে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের আরামে স্কুলে আনা-নেওয়া করছেন। ছোট্ট একটি শিশুর কাঁধে এত বড় ব্যাগ তুলে দিতে অভিভাবকরা একটুও কার্পণ্য করছেন না। এটা খুবই নির্মম। সত্যিকার অর্থে মানবাধিকারকর্মী হয়েও আমি এসব ঘৃণ্য কাজ থামাতে পারছি না। এটা আমাদের জন্য খুবই হতাশার।

তবে বাংলাদেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, তার প্রশংসা করে অ্যারোমা দত্ত বলেন, এই দেশ থেকে একদিন শিশুশ্রমও বন্ধ হবে; সব শিশু স্কুলে যাবে, তারাই আগামীতে একটি সুন্দর বাংলাদেশ নির্মাণ করবে।

advertisement