Paran Frooto
advertisement
Paran Frooto
advertisement
advertisement

রিজার্ভ ডে’তে বৃষ্টি হবে না এর কোনো নিশ্চয়তা নেই : আইসিসি

স্পোর্টস ডেস্ক
১২ জুন ২০১৯ ১৪:২৩ | আপডেট: ১২ জুন ২০১৯ ১৪:২৫
advertisement

চলতি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ১৬টি ম্যাচের ৩টি ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। লিগ পর্বে নেই কোনো রিজার্ভ ডে। ইংলিশদের এমন কন্ডিশনে বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে সবখানে। এরই মধ্যে বিষয়টি নিয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন এক বিবৃতিতে জানান, টুর্নামেন্টের দৈর্ঘ্যের কথা চিন্তা করেই রিজার্ভ ডে রাখা হয়নি। তিনি বলেন, ‘রিজার্ভ ডে রাখা হলে বিশ্বকাপের দৈর্ঘ্য লম্বা হয়ে যাবে। বাস্তব দৃষ্টিতে তা জটিল আকার ধারণ করতো।’

বিশ্বকাপের দৈর্ঘ্যই যে সমস্য তা নয়। বাজেট সঙ্কুলান, থাকার ব্যবস্থা, ভ্রমণ ক্লান্তি সব কিছুই নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারতো বলেও বিবৃতিতে জানান ডেভিড রিচার্ডসন। তার ভাষ্য, পিচ তৈরিতে প্রভাব পড়তো। দলগুলোর থাকার ব্যবস্থা, ভেন্যু নিয়েও সমস্যা হতো। ব্রডকাস্টের সুবিধাগুলি নিয়েও চিন্তা করতে হতো। দর্শকের কথা তো রয়েছেই। আর, রিজার্ভ ডে তেও যে বৃষ্টি হবে না, এর কোনো নিশ্চয়তা নেই।

ডেভিড রিচার্ডসন তার বিবৃতিতে ১ হাজার ২০০ কর্মীর কথাও তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ম্যাচকে ঘিরে যে সকল কর্মীরা কাজ করছেন, সম্প্রচারসহ এদের সঙ্গে সবকিছু যুক্ত। ফলে রিজার্ভ ডে রাখতে গেলে স্টাফদের সংখ্যাও বাড়াতে হবে। সব বিবেচনায় করেই নক আউট পর্বে রিজার্ভ ডে রাখা হয়েছে। কারণ গ্রুপ পর্বে সবচেয়ে বেশি ৪৫টি ম্যাচ খেলা হবে।

বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, এমন বৃষ্টি কাম্য ছিল না। প্রকৃতি বিরুপ আচরণ করছে। কয়েক দিনে সাধারণ গড় বৃষ্টির তুলনায় বেশি বৃষ্টি পড়েছে। ইংল্যান্ডে জুন মানে তৃতীয় শুষ্ক মাসের একটি। অথচ এ মাসেই এখানে ২ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

এর আগে ১৯৯২ ও ২০০৩ বিশ্বকাপে দুটি করে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয় যা বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ভেসে যাওয়া ম্যাচের সংখ্যা। কিন্ত চলতি বিশ্বকাপে তা ছাড়িয়ে গেছে এখনই।

advertisement