advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সেই কিশোরীর সন্তানসহ ৩ জনের ডিএনএ পরীক্ষা

হালুয়াঘাট প্রতিনিধি
১৩ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৩ জুন ২০১৯ ০৯:৫৭

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার সেই কিশোরীর সন্তানসহ ৩ জনের ডিএনও পরীক্ষা গতকাল বুধবার ঢাকায় সম্পন্ন হয়েছে। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি হাফেজ ইলিয়াস নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করে হালুয়াঘাট থানায় নিয়ে এসে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা এই কিশোরীর সঙ্গে বিভিন্ন মামলার ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক বিয়ে দিয়েছিলেন ওসি জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার।

গত ১৯ এপ্রিল ওই কিশোরী এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেয়। এদিকে মূল অভিযুক্তকে বাদ দিয়ে নির্দোষ ব্যক্তির সঙ্গে বিয়ে দেওয়ায় ভুক্তভোগী কিশোরী বাদী হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন।

advertisement

আসামিরা হলেন-স্থানীয় ইউপি সদস্যা তাছলিমা বেগম, ধারা বাজারের তাহা কসমেটিকের মালিক আলাল ও অজ্ঞাতপরিচয় তিন জন। আদালত অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নিতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ময়মনসিংহকে নির্দেশ দেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল বুধবার সকালে কিশোরীর কন্যা, হাফেজ ইলিয়াস ও মামলায় অভিযুক্ত আলাল মিয়াকে ঢাকায় নিয়ে ডিএনএ পরীক্ষা করানো হয় বলে নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু বক্কর সিদ্দিক।

উল্লেখ্য, গত ২১ এপ্রিল ‘ধর্ষককে আড়াল করতে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরীর অন্য যুবকের সাথে বিয়ে’ শিরোনামে দৈনিক আমাদের সময়ের অনলাইন সংস্করণে খবর প্রকাশিত হয়।