advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ইউপি গুদাম থেকে ২০৬ বস্তা সরকারি চাল উধাও

ইসলামপুর প্রতিনিধি
১৩ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৩ জুন ২০১৯ ১০:৩১

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার কুলকান্দি ইউনিয়নের অস্থায়ী গুদাম থেকে ভিজিডি প্রকল্পের ২০৬ বস্তা চাল উধাও হয়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান সনেটের বাড়িতে অস্থায়ী গুদামে চাল মজুদ রাখা ছিল।

উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মেহেরুন্নেছা ও সহকারী পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ওই ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্যাগ অফিসার জাকির হোসেন গত মঙ্গলবার গুদামে গিয়ে বস্তা গণনার পর ২০৬ বস্তা চাল কম পান। পরে তারা বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিজানুর রহমানকে অবহিত করেন। এ ব্যাপারে ইউএনও জানান, ইউপি চেয়ারম্যান বুধবার (গতকাল) বিকাল পর্যন্ত গুদাম থেকে উধাও হওয়া চাল বুঝিয়ে দিতে সময় নিয়েছেন। চাল ফেরত না এলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

advertisement

তবে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চাল গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত গুদামে ফেরত আসেনি। চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জানান, তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। তার গুদামে চালের বস্তা ঠিকই আছে। চাল বিতরণের সময় কম হলেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রয়োজন পড়বে। উপজেলা মহিলাবিষয়ক অফিসসূত্রে জানা যায়, কুলকান্দি ইউনিয়নের ভিজিডি প্রকল্পের আওতায় ২২৫ সুবিধাভোগী রয়েছে। এই মানুষগুলোকে প্রতিমাসে ইউপি কার্যালয় থেকে মাথাপিছু ৩০ কেজি করে চাল অথবা পুষ্টি আটা দেওয়ার কথা।

উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মেহেরুন্নেছা জানান, এ ইউনিয়নে গত মার্চ মাসের বরাদ্দের পুষ্টি আটা ও এপ্রিল মাসের বরাদ্দের ৪৫০ বস্তা চাল এক মাস আগে উত্তোলন করে চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান সনেট তার বাড়ির অস্থায়ী গুদামে নিয়ে যান। তবে এসব চাল নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরণ না করে এক মাস গুদামে মজুদ করে রাখেন। এর মধ্যে ২০৬ বস্তা চাল তার গুদাম থেকে উধাও হয়ে যায়।