advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পলেস্তারা খসে শিশুসহ ৮ জন আহত

নোয়াখালী প্রতিনিধি
১৩ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৩ জুন ২০১৯ ১০:২৯

নোয়াখালী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের পলেস্তারা খসে পড়ে চার শিশুসহ আটজন আহত হয়েছে। এ ভবনটি তিন বছর আগেই পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছিল বলে দাবি করেছে গণপূর্ত বিভাগ। আহতদের হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

খবর পেয়ে মাইজদি ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে অন্য রোগীদের বের করে আনেন।

advertisement

কর্তব্যরত চিকিৎসক ও রোগীর স্বজনরা জানান, গতকাল সকাল সাতটার দিকে হঠাৎ করে বিকট শব্দে শিশু ওয়ার্ডের পলেস্তারা খসে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় রোগীর স্বজনদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আহতরা হলেন-কবিরহাটের নলুয়া গ্রামের মো. ইব্রাহিম (৫০), তার ছেলে ইসমাইল (৫), একই গ্রামের সুমাইয়া (১২), নোয়াখালী সদরের মনতাসাপুর গ্রামের ইমামউদ্দিন (৫), চর জব্বারের সাদ্দাম, রাফি (আড়াই বছর) ও নোয়াখালীর সোনাপুর এলাকার পারুল বেগম।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. ইব্রাহিম খলিল উল্লাহ বলেন, আহতরা সবাই আশঙ্কামুক্ত। এ ঘটনার পর কর্তৃপক্ষ তিন তলাবিশিষ্ট হাসপাতালের ২য় তলার ৪নং ও ১৩ নং শিশু ওয়ার্ড এবং ৮ ও ১১ নং (পুরুষ মেডিসিন) ওয়ার্ডের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে। হাসপাতালে ভর্তি রুগীদের কুমিল্লা ও চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

অপরদিকে নোয়াখালী গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুল হাসান জানান, এই ভবনটি তিন বছর আগেই পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছে গণপূর্ত বিভাগ। এ ব্যাপারে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. ইব্রাহিম খলিল উল্লাহ বলেন, গণপূর্ত বিভাগ ঝুঁকিপূর্ণ বলেছে, কিন্তু পরিত্যক্ত বলেনি। তার এ বক্তব্যের জবাবে গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন, সবকিছু আমরা লিখিতভাবে জানিয়েছি। সব রেকর্ড আমাদের কাছে সংরক্ষিত রয়েছে।