advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

হারের পর ট্রলের শিকার পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা (ভিডিও)

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৭ জুন ২০১৯ ১৪:৫৫ | আপডেট: ১৮ জুন ২০১৯ ১৮:১০
advertisement

বিশ্বকাপের আসরে সাতবারের মতো ভারতের কাছে হারলো পাকিস্তান। ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টারে বৃষ্টির বিরতিতেও ৮৯ রানের বিশাল ব্যবধানে পাকিস্তানকে উড়িয়ে দেয় কোহলির ভারত। টসে জিতে বোলিং নিয়ে ম্যাচের শুরু থেকেই বিতর্কে জড়ান পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। পুরো দলকে তুলোধুনা করেছে পাকিস্তানের নাগরিকরা। ট্রল-মিম দিয়ে ভেসে যাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো।

ফেসবুক ও টুইটারের বিভিন্ন পোস্ট ও ভিডিও পর্যবেক্ষণ করে দেখা গেছে, পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের ওপর বেশ চটেছেন তাদের ভক্তরা।  এক নারী ভক্ত ম্যানচেস্টারের স্টেডিয়ামের বাইরে সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘হিটলার যেমন তার পুরো দলকে গুলি করে হত্যা করেছে, ঠিক সেভাবেই ওদের গুলি করে মেরে ফেলা উচিত।  মান-সম্মান সব শেষ করে দিয়েছে ওরা।  ভারতীয়রা জানতো তারা আজ জিতবে, তাই দর্শক কাতারে ৯০ ভাগ ছিলো তারা। আমরা জানতাম হারবো, তাই স্টেডিয়ামের বাইরেই রয়েছি। খেলা দেখতে যাইনি।’

আরেক পাকিস্তানি নাগরিক কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘আমি খোঁজ পেয়েছি গতকাল রাতে তারা বার্গার খাচ্ছিলো। পিজ্জাও খেয়েছে।  এদের দিয়ে ক্রিকেট বাদ দিয়ে কুস্তি খেলানো দরকার। তাদের কোনো ফিটনেস নাই।  কিছু নাই।  আমরা তাদেরকে দিয়ে এত আশা করে রয়েছি, এদেরকে বার্গার খাওয়াও, পরোটা খাওয়ায় এবং ভুঁড়ি বাড়াও।’

একজন আবার লিখেছেন, ‘পাকিস্তান বোলিং করলে মনে হয় ব্যাটিং পীচ।  আর ব্যাটিং করলে মনে হয় বোলিং পীচ।’

‘দেশ ভাগ না হতো, না এত লজ্জা পেতাম।’

‘আমি যখন মরে যাবো, আমি চাই সরফরাজ আমার মৃতদেহকে কবরে নামিয়ে দিক। তাহলে আরও একবার আমাকে নিচে নামানোর সুযোগ পাবে সে।’

‘খেলার প্রতিক্রিয়ায় সন্তানরা মায়ের কক্ষে গিয়ে বলছে, “মা আমাদের এই দিন দেখতেই জন্ম দিয়েছিলে?”’

‘ভারতীয় খেলোয়াড়দের দেখলে মনে হয়, তারা আসলেই খেলোয়াড়। আর আমাদেরগুলাকে দেখলে মনে হয় এক প্লেট বিরিয়ানি, লাচ্চি দিয়ে খেয়ে এসেছে।’

advertisement