advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

যৌন হয়রানির কথা স্বীকার সিরাজউদ্দৌলার

মুহাম্মদ আরিফুর রহমান,ফেনী
২০ জুন ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ জুন ২০১৯ ০৯:৪০
advertisement

ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলা ওই মাদ্রাসারই ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন হয়রানির কথা স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন পিবিআইয়ের চট্টগ্রাম বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল।

নুসরাতকে যৌন হয়রানির দায়ে তার মায়ের করা মামলায় একমাত্র আসামি সিরাজউদ্দৌলা। তাকে দুদিনের রিমান্ড শেষে আদালতের মাধ্যমে গতকাল জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিন বিকালে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহ আলম সিরাজকে আদালতে হাজির করেন। এদিকে নুসরাত হত্যা মামলায় আজ ২০ জুন অভিযোগ গঠনের দিন ধার্য রয়েছে বলে জানিয়েছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী এম. শাহজাহান সাজু।

অন্যদিকে যৌন হয়রানি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. শাহ আলম জানান, ওই মামলাতেও শিগগিরই অভিযোগপত্র দেওয়া হবে। প্রসঙ্গত নুসরাতকে হত্যা করার আগে গত ২৭ মার্চ তার মা শিরিন আক্তার সোনাগাজী থানায় সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে তার মেয়েকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগ এনে মামলা করেন। এ মামলাও পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পিবিআইয়ের চট্টগ্রাম বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল জানান, ২৭ মার্চের যৌন হয়রানির মামলায় সিরাজউদ্দৌলাকে দুদিনের রিমান্ড শেষে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অধ্যক্ষ সিরাজ নুসরাতকে যৌন হয়রানির কথা স্বীকার করেছেন। এর আগে হত্যা মামলায় তিনি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সে জবানবন্দিতে ২৭ মার্চ যৌন হয়রানির বিষয়টি স্বীকার করেছেন। যার কারণে এ মামলায় নতুন করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ার প্রয়োজন হয়নি।

মামলায় বাদীপক্ষের আইনজীবী এম. শাহজাহান সাজু বলেন, ২০ জুন এ মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের দিন ধার্য করেছেন আদালত। ২০ জুন অভিযোগ গঠন হলে সাক্ষীর পর্ব ও মামলার বিচার প্রক্রিয়া শুরু হবে। চলতি বছরের ২৭ মার্চ সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নিপীড়নের দায়ে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলাকে ওইদিনই আটক করে পুলিশ।

পরে ৬ এপ্রিল ওই মাদ্রাসাকেন্দ্রের সাইক্লোন শেল্টারের ছাদে নিয়ে অধ্যক্ষের সহযোগীরা নুসরাতের শরীরে আগুন ধরিয়ে দেয়। টানা ৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মারা যায় নুসরাত জাহান রাফি। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বাদী হয়ে অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলাসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

advertisement