advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৫ মামলার আসামি নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ জুন ২০১৯ ১০:২১ | আপডেট: ২০ জুন ২০১৯ ১০:৩২
advertisement

নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে লিপু নামে এক অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও ডাকাত নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, নিহত লিপু অস্ত্র, মাদক, নারী নির্যাতন, হত্যার চেষ্টা, ডাকাতিসহ অন্যান্য মামলা নিয়ে মোট ১৫টি মামলার আসামি।

গতকাল বুধবার দিবাগত রাত ২টা ১০ মিনিটে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত লিপু উপজেলার পিলকুনি এলাকার শামসুল হকের ছেলে।

বন্দুকযুদ্ধে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন- জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর এনামুল হক, এসআই কামরুল ইসলাম ও কনস্টেবল নাদিম। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর এনামুল হক বলেন, বুধবার রাতে লিপুকে গ্রেপ্তারের পর তাকে নিয়ে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। ফতুল্লার দাপা বালুর মাঠের কাছে পৌঁছলে লিপুকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে সহযোগীরা। এ সময় তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষায় পাল্টা গুলি চালালে তারা পালিয়ে যায়। এ সময় লিপুকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পরে থাকতে দেখা যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থল হতে একটি শুটারগান ও এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান গোয়েন্দা পুলিশের ওই কর্মকর্তা।