advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বন্ধ্যাত্ব দূর করতে যা করবেন

অনলাইন ডেস্ক
৭ জুলাই ২০১৯ ১০:৫০ | আপডেট: ৭ জুলাই ২০১৯ ১০:৫০
advertisement

প্রত্যেকেই চায় বিয়ে করে নতুন সংসার শুরু করতে। আর এই নতুন দাম্পত্য জীবন পূর্ণতা পায় যখন সন্তান জন্ম নেয়। নিজেদের সমস্ত চাওয়া পাওয়া, স্বপ্ন সব কিছু তাকে ঘিরেই আবর্তিত হয়। কিন্তু এই স্বপ্নের অন্তরায় হতে পারে বন্ধ্যাত্ব। এটা এমন এক সমস্যা, যা সংসার জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলতে পারে।

এই বন্ধ্যাত্ব নারী-পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রেই হয়ে থাকে। তাই সমাধান খোঁজার আগে জানা দরকার কী কী কারণে পুরুষ এবং নারী বন্ধ্যাত্ব হয়।

নারীদের ক্ষেত্রে যে কারণে এই সমস্যা হয়-জনন গ্রন্থির শারীরবৃত্তীয় পথে কোনো বাধা থাকলে, শরীরে অতিরিক্ত প্রলাক্টিন থাকলে, পলিসিস্টিক ও ভারী সিনড্রোম থাকলে, অতিরিক্ত বয়স্ হলে, অতিরিক্ত টেনশন বা দুশ্চিন্তা বা অবসাদ থাকলে।

পুরুষদের ক্ষেত্রে যে কারণে সমস্যা হয়-অতিরিক্ত স্ট্রেস থেকে, স্পার্ম কাউন্ট কম থাকলে, বয়স বেড়ে যাওয়ার কারণে।

এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক-কীভাবে এই বন্ধ্যাত্ব সমস্যার মোকাবিলা করবেন-

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবার খান

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবার খেলে শরীরের জনন গ্রন্থিগুলো আক্রমণকারী পদার্থগুলোকে ধ্বংস করে তাদের ক্ষতির হাত থেকে বাঁচায়। একই সঙ্গে গর্ভধারণ করার ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। এর পাশাপাশি স্পার্ম কাউন্ট বৃদ্ধি করে। এজন্য যেকোনো ধরনের সবজি, ভিটামিন সি ও ই সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া ভালো।

সকালের খাবার বাড়ানো

সকালের খাবার সবসময় চেষ্টা করুন দিনের অন্যান্য খাওয়া থেকে একটু বৃদ্ধি করা। সুস্থ্য ডায়েট যদি চান অবশ্যই দিনের প্রথম খাবার ভালো হতে হবে। অনেকে মনে করেন যে সমস্ত নারীরা পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম থেকে আক্রান্ত, তাদের ক্ষেত্রে  সকালের ভারী নাস্তা অনেকটাই কাজ দেয়।  

ট্রান্স ফ্যাট

চেষ্টা করুন ট্রান্স ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবার না খেতে। সাধারণত মার্জারিন, প্রসেসড ফুড এবং অন্যান্য খাবার, যেগুলোতে ফ্যাট বেশি আছে-এসব পরিত্যাগ করা দরকার। একই সঙ্গে কম কার্বোহাইড্রেট খাওয়া শুরু করুন।এতে শরীরে ইনসুলিনের লেভেল কমবে।

মাল্টিভিটামিন

যেসব নারীরা শরীরের প্রয়োজন অনুযায়ী মাল্টিভিটামিন খান, তাদের বন্ধ্যাত্বজনিত সমস্যা অনেক কম হয় বা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এর সঙ্গে গ্রীন টি, ভিটামিন ই এবং ভিটামিন বি৬ সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া দরকার।

নেশা বর্জন করুন

অতিরিক্ত অ্যালকোহল খাওয়া কমান। ধূমপানের নেশা থাকলে তা ক্ষতিকর। কারণ এটি পুরুষের স্পার্ম কাউন্ট কমায়। একই সঙ্গে ক্যাফেইন জাতীয় পানীয় খাওয়া বন্ধ করুন বা পরিমিত সেবন করুন।

শরীরচর্চা

প্রয়োজনের অতিরিক্ত বসে থাকলে শরীরে অতিরিক্ত ফ্যাট জমতে থাকে যা ক্ষতিকর। তাই অবশ্যই নিয়মিত শরীরচর্চা করুন এবং আয়রন সমৃদ্ধ খাবার প্রচুর পরিমাণে খান। এর সঙ্গে খান সেসব ফল, যা প্রাকৃতিকভাবে আয়রনের পর্যাপ্ত যোগান হিসেবে পরিচিত।

advertisement