advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রাষ্ট্রপতিকে রক্তে লেখা চিঠি পাঠালেন ২ তরুণী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
৮ জুলাই ২০১৯ ১২:৫৬ | আপডেট: ৮ জুলাই ২০১৯ ১২:৫৬
advertisement

মিথ্যা মামলায় ফেঁসে রাষ্ট্রপতির কাছে সাহায্য প্রার্থনা করলেন ভারতের পাঞ্জাবের দুই তরুণী। তাদেরকে ফাঁদে ফেলা হয়েছে উল্লেখ করে ভারতের রাষ্ট্রপ্রধান রামনাথ কোবিন্দকে রক্তে লেখা চিঠি পাঠিয়েছেন তারা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে,পাঞ্জাবের মোগা শহরের দুই তরুণী চিঠিতে দাবি করেছেন, একটি প্রতারণা মামলায় তাদের ফাঁদে ফেলা হয়েছে।  বর্তমানে তারা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। ন্যায়বিচার না-পেলে পুরো পরিবারকে স্বেচ্ছামৃত্যুর অনুমতি দেওয়া হোক বলেও কাতর মিনতি করেছেন দুজন।

চিঠিতে তারা আরও লিখেছেন, ‘আমাদের বিরুদ্ধে ভিসা জালিয়াতি ও প্রতারণাসহ দুটি মিথ্যে মামলা আনা হয়েছে।  আমাদের ফাঁদে ফেলা হয়েছে।  পুলিশকে তদন্ত করে দেখার অনুরোধ জানিয়েছি। তবে তারা সে কথা শুনেনি।’

এদিকে তরুণীদের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মোগার পুলিশ অফিসার কুলজিন্দর সিং। তিনি বলেন, ‘এই মেয়েদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং তদন্ত চলছে।  শিগগিরই এর নিষ্পত্তি হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘তারা দুজন আমার কাছে এসেছিল এবং বলেছিল যে তারা অর্থের কাজ করে। তারা নিরাপত্তার ভিত্তিতে একটি চেক পেয়েছিল। এদিকে তাদের বিরুদ্ধে অপর একটি পক্ষ মামলা দায়ের করেছে। ওই পক্ষের অভিযোগ, তাদের ছেলেকে বিদেশে পাঠানোর জন্য ওই দুই তরুণীকে টাকা দিয়েছে এবং ওই তরুণীরা নিজেদের এজেন্ট হিসেবে পরিচয় দিয়ে ওই টাকা আত্মসাৎ করেছে।’

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘আমি শুনেছি, তারা রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন। কিন্তু এই বিষয়ে আমি এখন পর্যন্ত কোনো সরকারি তথ্য পাইনি।’