advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মাশরাফীদের কনফিডেন্সের অভাব দেখেননি প্রধানমন্ত্রী

ক্রীড়া প্রতিবেদক
৮ জুলাই ২০১৯ ১৮:২০ | আপডেট: ৮ জুলাই ২০১৯ ১৮:২০
advertisement

জয় দিয়ে শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের বিশ্বকাপ যাত্রা। কিন্তু শেষটা শুরুর মতো রঙিন হলো না। তিনটিতে জয় আর পাঁচটিতে হেরে  পয়েন্ট টেবিলের আট নম্বরে থেকে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করে বাংলাদেশ। তবে টাইগারদের এই পারফর্মেন্সেও খুশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ সোমবার বিকেলে গণভবনে চীন সফরের পর আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন,  ‘আমি দোষ দেব না, কারণ খেলা এমন একটা জিনিস, অনেক সময় এটা ভাগ্যও কিন্তু লাগে, ঠিকমতো সবসময় যে একইরকম হবে তা না। কিন্তু সাহসী মনোভাব নিয়ে মোকাবেলা করা আমি এটা প্রশংসা করি।’

বাংলাদেশের খেলা নিয়মিত দেখেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি কিন্তু খেলাগুলো দেখেছি। চীনেও অফিসিয়ালরা খেলা দেখার ব্যবস্থা করেছে, আমি দেখেছি। আমি খেলা দেখেছি কিন্তু অনেক রাত পর্যন্ত। অফিসিয়াল কাজও করেছি খেলাও দেখেছি। হয়তো এক পার্ট দেখতে পেরেছি, এক পার্ট দেখতে পারিনি। যতটুকু সময় পেয়েছি আমি দেখেছি।’

বাংলাদেশের খেলায় অনেক উন্নয়ন হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বলব বাংলাদেশ কিন্তু খেলায় যথেষ্ট উন্নয়ন করেছে। নামীদামী একেকটা টিমের সঙ্গে খেলা, এটা কিন্তু কম কথা না। কিন্তু বাংলাদেশের পারফর্মেন্স অত্যন্ত চমৎকার ছিল। তবে এটা ঠিক আমরা যে খেলতে পেরেছি, এতদূর যেতে পেরেছি এটাও অনেক বড় কথা।’

বাংলাদেশকে ছোট না করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এতগুলো দেশ খেলল তার মধ্যে চারটা দেশ সেমিতে উঠেছে। তার মানে আপনারা সবাই বলবেন যে বাকিরা সবাই খারাপ খেলে গেছে? সেটা বলবেন? তাহলে আমরা নিজেরা নিজেদেরকে ছোট করি কেন? নিজদের এত খারাপ বলি কেন?’

‘বরং আপনারা এটা বলেন, একেকটা জাদরেল জাদরেল দেশ, দীর্ঘদিন যারা খেলে অভ্যস্ত তাদের সঙ্গে মোকাবেলা করে আমাদের ছেলেরা খেলতে পেরেছে, তাদের কনফিডেন্সের অভাবতো আমি দেখিনি।’

প্রধানমন্ত্রী মনে করেন বাংলাদেশ দলের ধীরে ধীরে উন্নতি হবে। তিনি বলেন, ‘সেখানে আমাদের ছেলেদের ধন্যবাদ জানাবো, তারা যথেষ্ট সাহসের পরিচয় দিয়েছে। তাদের ভেতর আলাদা একটা আত্মবিশ্বাস ফিরে এসেছে। এটা ধীরে ধীরে আরও উন্নতি হবে।’