advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ওয়াশিংটনে প্রবল বৃষ্টিপাতে ভয়াবহ বন্যা, হোয়াইট হাউসে পানি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
৯ জুলাই ২০১৯ ১২:০৮ | আপডেট: ৯ জুলাই ২০১৯ ১২:০৮
advertisement

টানা এক ঘণ্টার রেকর্ড পরিমাণ ভারী বৃষ্টিপাতে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসির আংশিক ডুবে গেছে। এমনকি হোয়াইট হাউজের নিচতলার একটি দপ্তরের মেঝেতেও পানি জমে গেছে।

ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিসের আবহাওয়াবিদ মার্ক টুইট করেছেন, ‘একেবারে বিপজ্জনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।  সকলেরই উঁচু জায়গায় আশ্রয় নেওয়া প্রয়োজন! সোমবার সকাল ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে রেগন ন্যাশনাল এয়ারপোর্ট এলাকায় ৩ দশমিক ৫ ইঞ্চি অর্থাৎ ৮ দশমিক ৪ সেমি (১২০০-১৩০০ জিএমটি) বৃষ্টি হওয়ার ফলে পানি জমে গেছে।  এর আগে ১৯৫৮ সালে এক ঘণ্টায় ২ দশমিক ২ ইঞ্চি অর্থাৎ ৫ দশমিক ৬ সে.মি বৃষ্টিপাত হয়েছিল।  ১৮৭১ সালের পর এই নিয়ে সপ্তমবার জুলাইয়ে রেকর্ড পরিমাণ বৃষ্টি হলো।’

ওয়াশিংটন পোস্ট বলছে, বৃষ্টিপাতের কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই অসংখ্য বাড়িঘর পানিবন্দী হয়ে যায়।  রাস্তায় থেমে থাকা গাড়িগুলো বৃষ্টির পানিতে ভেসে যায়। সড়কপথগুলো নিমিষেই নদীতে পরিণত হয়েছে।  এমনকি বাড়ির পেছনে উঠান কয়েক সেকেন্ডে হ্রদে পরিণত হয়েছে।  শহরের অনেক এলাকায় লোকজন আকস্মিক বন্যার মধ্যে গাড়িতে আটকা পড়ে।

উত্তর-পশ্চিমে আরলিংটন, ভার্জিনিয়াতেও সকাল ৯টা থেকে ১০ পর্যন্ত প্রায় ৫ ইঞ্চি অর্থাৎ ১২ দশমিক ৭ সেমি বৃষ্টিপাত হয় বলে জানিয়েছেন চেনার্ড। ওয়াশিংটনের জাদুঘর ও স্মৃতি সংগ্রহশালাগুলোতেও পানি প্রবেশ করেছে। ফলে তা সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।  ডিসি ফায়ার ও ইএমএস জানিয়েছে, দিনের মাঝামাঝি পর্যন্ত ১৫টি গাড়ির চালককে উদ্ধার করা হয়েছে।

বন্যার পানিতে আটকে পড়া মানুষদের উদ্ধার করার জন্যে হলুদ রাবার লাইফবোট ব্যবহার করছেন উদ্ধারকারীরা।  টুইটারের ছবিতে দেখা যাচ্ছে, কিভাবে পেনসিলভানিয়া এভিনিউয়ের একটি অফিসের চেয়ার এবং টেবিল পানিতে ভাসছে।

সিএনএনের সাংবাদিক বেটসি ক্লেইন টুইট করেন, ‘হোয়াইট হাউস চুইয়ে পানি পড়ছে।’সকালের শেষভাগে বৃষ্টিপাত কমে এসেছে এবং দুপুরের মধ্যে বন্ধ হতে পারে, এমন আশা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।  

প্রবল বৃষ্টিপাতের সময় ওয়াশিংটনের মেট্রো স্টেশনগুলোর সিলিং থেকে প্রবল ধারায় পানি নেমে আসতে দেখা গেছে।