advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বেতন ভাতার দাবিতে দিনভর ৪৩১ কর্মচারীর বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১১ জুলাই ২০১৯ ২০:৩৮ | আপডেট: ১১ জুলাই ২০১৯ ২০:৩৮
advertisement

প্রায় পাঁচ মাস ধরে বেতন ভাতা পাচ্ছেন না মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আওতাধীন ৪৩১ জন অস্থায়ী কর্মচারী। তারা এই অধিদপ্তরের উপজেলা পর্যায়ে নারীদের জন্য আয়বর্ধক প্রশিক্ষণ (আইজিএ) প্রকল্পে দেশব্যাপী কর্মরত।

দিনের পর দিন কাজ করেও বেতন ভাতা না পাওয়ায় পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন দরিদ্র কর্মচারীরা। ঘুরছেন দপ্তরে দপ্তরে। দ্বারস্থ হয়েছেন উচ্চ আদালতেও। আদালত ভুক্তভোগী ওই কর্মচারীদের বেতন ভাতা পরিশোধের রায় দিলেও কর্ণপাত করছেন না মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর।

আজ বৃহষ্পতিবার পর্যন্ত তারা পাননি বেতন ভাতার টাকা। ফলে রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছেন অসহায় ওই কর্মচারীরা। আজ সকাল থেকে রাত পর্যন্ত রোদ-বৃষ্টিতে ভিজে ওই ৪৩১ কর্মচারী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন রাজধানীর ইস্কাটন এলাকায় অবস্থিত মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের সামনে ও কার্যালয়ের ভেতরে। বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

আউট সোর্সিং জনবল ঐক্য পরিষদের (আইজিএ) সভাপতি মো. শামীম রেজা আমাদের সময়কে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের অধীনস্থ মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপজেলা পর্যায়ে নারীদের জন্য আয়বর্ধক প্রশিক্ষণ প্রকল্পে গত বছরের ১ মার্চ থেকে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে অস্থায়ী ভিত্তিতে কাজ করছি। চলতি বছরের মার্চ মাস থেকে আমাদের বেতন ভাতা দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এমনকি ঈদের সময়ও কোনো টাকা দেয়নি তারা। কিন্তু প্রতিনিয়ত কাজ করিয়ে নিচ্ছেন ঊর্ধ্বতন ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা।’

মো. শামীম রেজা আরও বলেন, ‘বেতন ভাতা না দেওয়ার বিষয়ে আমরা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছি। এই বিষয়ে উচ্চ আদালতে রিট করা হয়েছে। আদালত আমাদের বেতন ভাতা প্রদানের রায় দিয়েছেন। মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর এই রায়ের বিষয়ে সুপ্রিমকোর্টে আপিল করেছিলেন। কিন্তু তাদের সেই আপিল খারিজ করে উচ্চ আদালতের রায় বলবৎ রেখেছেন আদালত।  কিন্তু আদালতের রায় কর্ণপাত করছেন না মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর। ’

আইজিএ’র সভাপতি বলেন, ‘ধার-দেনা করে এতদিন চলেছি। কিন্তু এখন আর আমাদের কেউ ধারও দিতে চাচ্ছে না। ফলে পরিবার-পরিজন নিয়ে খেয়ে না খেয়ে আছি আমরা। তাই নিরুপায় হয়ে রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছি। আমরা শান্তিপূর্ণভাবে দাবি আদায়ের জন্য বৃহষ্পতিবার সকাল থেকে মানবন্ধন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছি। কিন্তু অধিদপ্তরের কেউই আমাদের কথা শুনতে আসেনি। ’

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি-অতিরিক্ত সচিব) বদরুন নেছা আমাদের সময়কে বলেন, ‘মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আওতাধীন অস্থায়ী ভিত্তিক কর্মচারীরা বিক্ষোভ করছেন বিষয়টি আমার জানা নেই।’

তবে কর্মচারীদের দাবির বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে বদরুন নেছা কোনো মন্তব্য করেননি। 

advertisement