advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রিফাত হত্যা মামলায় আরও এক আসামি গ্রেপ্তার

রবগুনা প্রতিনিধি
১১ জুলাই ২০১৯ ২৩:২৩ | আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৯ ০২:১৬
advertisement

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত ছয় নম্বর আসামি মো. আল কাইয়ূম ওরফে রাব্বি আকনকে (২১) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।বৃহস্পতিবার রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

বরগুনার পুলিশ সুপার (এসপি) মারুফ হোসেন বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে এক প্রেস ব্রিফিং এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত বুধবার রাতুল নামের এক স্কুলছাত্রকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার আদালত তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ ছাড়া গত মঙ্গলবার হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে রাফিউল ইসলাম রাব্বি।

এর আগে গত ১ জুলাই এ হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ১১ নম্বর আসামি মো. অলিউল্লাহ অলি ও তানভীর একই আদালতে রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দেয়। এরপর গত ৪ জুলাই ৪ নম্বর আসামি চন্দন ও ৯ নম্বর আসামি মো. হাসানও একই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। ৫ জুলাই একই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় অভিযুক্ত মো. সাগর ও নাজমুল হাসান।

এদিকে এ মামলার দ্বিতীয় আসামি রিফাত ফরাজির স্বীকারোক্তি অনুযায়ী গত সোমবার সকালে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত রামদা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া মামলার ১২ নম্বর আসামি টিকটক হৃদয় ও সন্দেহভাজন অভিযুক্ত আরিয়ান শ্রাবন পাঁচ দিনের ও সাইমুন ৩ দিনের রিমান্ডে রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্ত্রী মিন্নিকে বরগুনা সরকারি কলেজে নিয়ে যান রিফাত। কলেজ থেকে ফেরার পথে মূল ফটকে নয়ন ও রিফাত ফরাজীসহ বেশ কয়েকজন রিফাত শরীফের ওপর হামলা চালান। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে রিফাত শরীফকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন তারা। রিফাত শরীফের স্ত্রী মিন্নি দুর্বৃত্তদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন।

কিন্তু কিছুতেই হামলাকারীদের থামানো যায়নি। তারা রিফাত শরীফকে উপর্যুপরি কুপিয়ে রক্তাক্ত করে চলে যান। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় রিফাত শরীফকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে তার মৃত্যু হয়।এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন।