advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কসবায় শিশুধর্ষণ চেষ্টায় মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেপ্তার

কসবা (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
১২ জুলাই ২০১৯ ০০:০৩ | আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৯ ০২:১৭
advertisement

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ৯ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে রফিক মিয়া নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার উপজেলার কায়েরপুর ইউনিয়ন থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার রফিক মিয়া গত রোববার উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের মইনপুর হাফিজিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। তার বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার বানেশ্বর গ্রামে।

জানা গেছে, রফিক মিয়া যোগদানের পর থেকে প্রতিদিন সকালে মক্তবে শিশুদের পড়াতেন। বৃহস্পতিবার সকালে ওই শিশুটি প্রথমদিন মক্তবে পড়তে যায়। পড়া শেষে অন্য শিশুদের ছুটি দিয়ে ওই শিশুটিসহ তিন-চারজনকে মাদ্রাসা পরিষ্কারের কথা বলে আটকে রাখেন। এরপর ওই শিশুটিকে তার কাছে রেখে বাকিদের মাদ্রাসার ময়লা পরিষ্কারের কাজে লাগান তিনি।

পরে ওই শিশুকে কোলে নিয়ে তার গোপনাঙ্গসহ শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দেয় এবং এক পর্যায়ে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় শিশুটি চিৎকার দিলে রফিক তাকে ছেড়ে দেন। শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়িতে গিয়ে তার মাকে ঘটনাটি জানায়। তখন বাড়ির লোকজন গিয়ে ওই শিক্ষককে আটক করে।

গ্রামের লোকজন এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চাইলে রফিক দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এ সময় উপস্থিত লোকজন তাকে আটক করে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে তাকে থানায় নিয়ে আসে।

কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) আসাদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘রফিক মিয়াকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির মামা বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করেছেন। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।’