advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নাচে-গানে ‘বর্ষামঙ্গল’ উদযাপন

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক
১২ জুলাই ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৯ ০০:১১
advertisement

রাজধানীতে আষাঢ়ের বৃষ্টিমুখর দিনে অনুষ্ঠিত হলো ‘বর্ষামঙ্গল’ শীর্ষক সংগীত ও নৃত্যানুষ্ঠান। গতকাল সন্ধ্যা ৬টায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে এ আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপন করা হয়েছে বর্ষা ঋতুকে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে যন্ত্রসংগীত পরিবেশনের পর শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। সন্তানদের ঋতুবৈচিত্র্য উপভোগ করার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের অসাধারণ ছয়টি ঋতু আছে। কিন্তু শহরে বসে আমরা তা পুরোপুরি উপভোগ করতে পারি না। ছয়টি ঋতু নিয়ে যেসব শিল্প আমরা নির্মাণ করেছি- তা বিশ্বে বিরল।

অনুষ্ঠানে একাডেমির সংগীতশিল্পীরা সমবেত সংগীত পরিবেশন করেন। ‘মন মোর মেঘের সঙ্গী’, ’এসো হে সজল শ্যাম ঘন দেয়া’, ‘অমৃত মেঘের বারি’, ‘আজি ঝর ঝর মুখর বাদল দিনে’ এবং ‘গহন ঘন ছাইলো’ গানের কথায় সমবেত সংগীত পরিবেশিত হয়। ‘পরদেশী মেঘ’, ‘শাওন গগন ঘোর ঘনঘটা’ এবং ‘বর্ণে গন্ধে ছন্দে গীতিতে’ গানের কথায় সমবেত নৃত্য পরিবেশন করেন একাডেমির নৃত্যশিল্পীরা।

একাডেমির সংগীতশিল্পীরা একক সংগীতও পরিবেশন করেন। ‘মেঘ বলছে যাবো যাবো’ গান পরিবেশন করেন শিল্পী মোহনা দাস, ‘সখী বাঁধলো বাঁধলো ঝুল নিয়া’ পরিবেশন করেন শিল্পী হিমাদ্রী রায়, ‘এই মেঘলা দিনে একলা’ গান পরিবেশন করেন শিল্পী সোহানুর রহমান, ‘যদি মন কাঁদে তুমি চলে এসো’ পরিবেশন করেন শিল্পী সুচিত্রা সূত্রধর, ‘আকাশ মেঘে ঢাকা’ পরিবেশন করেন শিল্পী আবিদা রহমান সেতু, ‘সমুদ্রের কিনারে বসে’ পরিবেশন করেন শিল্পী হীরক সর্দার, ‘আষাঢ় মাইসা ভাসা পানি রে’ গান করেন শিল্পী রোখসানা আক্তার রূপসা, ‘শ্রাবণের মেঘগুলো’ গান করেন শিল্পী রাফি তালুকদার।

এ ছাড়া রবীন্দ্রসংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী নবনীতা, নজরুলসংগীত করেন শিল্পী ইয়াসমীন মুস্তারী, আধুনিক গানে ছিলেন শিল্পী রফিকুল আলম এবং লোকগীতি পরিবেশন করেন শিল্পী আবু বকর সিদ্দীক। অনুষ্ঠানে আবৃত্তি পরিবেশন করেন শিল্পী কৃষ্টি হেফাজ।

শিল্পকলায় মঞ্চস্থ নাটক ‘ঠিকানা’ : লোকনাট্যদল (বনানী) প্রযোজিত মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক নাটক ‘ঠিকানা’। গতকাল সন্ধ্যা ৭টায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে মঞ্চস্থ হয় নাটকটি। বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় রচিত এ নাটকটি বাঙালির আত্মত্যাগের একটি অসামান্য আখ্যান।

উৎপল দত্ত রচিত এ নাটকটির নির্দেশনায় দিয়েছেন লোকনাট্যদলের (বনানী) জ্যেষ্ঠ সদস্য ড. প্রণবানন্দ চক্রবর্ত্তী। নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- সামসাদ বেগম, ইউজিন গোমেজ, হাফিজুর রহমান, প্রণবানন্দ চক্রবর্ত্তী, মনিকা বিশ্বাস, সাদেক ইসলাম, অন্দ্রিলা অদিতি দাস, মোজাক্কির আলম রাফান, সোহেল মাসুদ, আরিফ আহম্মেদ, তনয় মজুমদার, সুধাংশু নাথ, তানজিনা রহমান, জসিমউদ্দিন খান, আবদুল্লাহ আল হারুন, বাসুদেব হালদার, মিনহাজুল হুদা দীপ প্রমুখ।