advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এবার ব্রিটিশ জাহাজ আটকের চেষ্টা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১২ জুলাই ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৯ ০০:১২
advertisement

পারস্য উপসাগরে এবার যুক্তরাজ্যের তেলবাহী একটি জাহাজকে আটকানোর চেষ্টা করেছে ইরান। তবে লন্ডনের এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছে তেহরান। গত দুই মাসে বিদেশি ছয়টি জাহাজে বিস্ফোরণের অভিযোগও ইরান অস্বীকার করেছিল।

বিবিসি জানিয়েছে, গতকাল সকালে ওমান ও পারস্য উপসাগরের মাঝামাঝি হরমুজ প্রণালিতে একটি ব্রিটিশ ট্যাংকার প্রতিহতের চেষ্টা করেছিল ইরানি বিপ্লবী বাহিনীর পাঁচটি নৌকা। ব্রিটিশ হেরিটেজ ট্যাংকারের দিকে এগিয়ে গিয়েছিল তারা। কিন্তু রয়্যাল নৌবাহিনীর একটি জাহাজ ওই চেষ্টাকে নস্যাৎ করে দিয়েছে। ব্রিটিশ সরকার জানিয়েছে, এইচএমএস মন্ট্রোস জাহাজটি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ইরানি নৌকা ও ট্যাংকারের মাঝামাঝি অবস্থান নিতে বাধ্য হয়েছিল।

তবে বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর দাবি, ‘বিগত ২৪ ঘণ্টায় ব্রিটিশসহ কোনো ধরনের বিদেশি জাহাজের সঙ্গে আমাদের সংযোগ হয়নি।’

সপ্তাহ ধরেই ইরানি ট্যাংকার আটকের প্রতিশোধের হুমকি দিয়ে আসছিল তেহরান। সেই সময় ব্রিটিশ রয়্যাল মেরিন গিব্রাটার কর্তৃপক্ষকে একটি ইরানি তেল ট্যাংকার জব্দে সহায়তা করেছিল। তাদের দাবি, ওই ট্যাংকারটি ইইউ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সিরিয়ার দিকে এগোচ্ছিল। জবাবে এক ইরানি কর্মকর্তা বলেন, তাদের জাহাজ ছেড়ে না দিলে ব্রিটিশ জাহাজ জব্দ করা উচিত। এ ছাড়া ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতকে তলব করে তারা।

সাম্প্রতিক এই দ্বন্দ্ব এমন একটি সময়ে দেখা দিল, যখন যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ইরানের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের কূটনৈতিক সম্পর্কও খুব একটা ভালো যাচ্ছে না।

জুন মাসে দুটি তেলের ট্যাংকারে হামলা হওয়ার ঘটনায় ‘প্রায় নিশ্চিতভাবে’ ইরান জড়িত বলে মন্তব্য করার পর দুই দেশের সম্পর্কে অবনতি ঘটেছে।

যুক্তরাজ্য সরকারের এক মুখপাত্র বলেন, ‘তেলের ট্যাংকার আটকানোর চেষ্টার এ কার্যক্রম আন্তর্জাতিক আইনের বিরোধী। আমরা এ বিষয়ে চিন্তিত এবং ওই অঞ্চলের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্য ইরানের প্রতি আহ্বান জানিয়ে যাচ্ছি।’