advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অসাধারণ পারফরম্যান্স বোলারদের

১২ জুলাই ২০১৯ ০০:০০
আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৯ ০০:১৩
advertisement

বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট ভারতকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে নিউজিল্যান্ড। সেমিফাইনালে বোলাররা অসাধারণ বোলিং করেছে। এমন উচ্চ চাপের ম্যাচে ওয়ানডে ক্রিকেটের অন্যতম সেরা পারফরম্যান্স দেখিয়েছে দল। ট্রেন্ট বোল্ট ও ম্যাট হেনরি অবাক করা স্পেল করেছে। নতুন বলে খারাপ করেননি স্যান্টনারও। আমার দেখা মতে বোল্ট ও হেনরির প্রথম স্পেল ছিল সেরা। ভারতের মতো উঁচু মানের ব্যাটিং লাইনআপের প্রতিভাবান তিন ব্যাটসম্যানকে শুরুতেই ব্যর্থ করে দেওয়াটা ছিল বিশেষ কিছু। দীর্ঘ সময় ধরে বোলাররা সঠিক জায়গায় বল ফেলে তাদের (ভারত) ব্যাটসম্যানদের চাপে রেখেছে। এ কারণেই দ্রুত উইকেট এসেছে।

সেমিফাইনালে প্রচ- চাপ থাকে। নানান হিসাব-নিকাশ করে খেলতে হয়। অনেক কিছুই দেখা গেছে ম্যাচে। সম্ভাব্য সব কিছুই করেছে নিউজিল্যান্ড। বোলিংয়ে প্রত্যাশা ছাড়ানো পারফরম্যান্স উপহার দিয়েছে বোলাররা। এ জন্য গর্ববোধ করা উচিত। অন্যদিকে ভারতের রবীন্দ্র জাদেজাকে কৃতিত্ব দিতে হবে। দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছে সে। অধিক চাপের মধ্যে সে অবিশ্বাস্য খেলেছে। দারুণ জুটি গড়েছে। বোলিং আক্রমণকে ব্যাপক চাপে ফেলে দিয়েছিল। তবে বোলারদের আত্মবিশ্বাস ছিল। দক্ষতার পরিচয় দিয়েছে তারা। ফিল্ডিংয়েও চমৎকার দেখা গেছে দলকে। জিমি নিশাম চোখ ধাঁধানো পারফরম্যান্স করেছে। ম্যাচে সব বিভাগে সমান পারদর্শী ছিল সে। একইভাবে মার্টিন গাপটিলের করা ধোনির রানআউট সময়োপযোগী ছিল। গ্রাউন্ড ফিল্ডিংয়ে দুর্দান্ত সে। ম্যাচে অনেক ম্যাচ-উইনার ছিল। সবার প্রশংসাই করতে হবে।

ভালো একটি দলকে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। এ জয় কখনো ভোলার নয়। ম্যানচেস্টারে যে অর্জন করেছে দল, গর্ব নিয়ে ফাইনালে খেলবে তারা। ২৪০ রানের স্কোরেও যে ম্যাচ দারুণ জমে ওঠে তা দেখা গেছে ম্যানচেস্টারে। ফাইনালে আবারও সমর্থকদের দারুণ কিছু উপহার দেবে দলÑ এমন প্রত্যাশা করি। সেমিফাইনালে জেতার আত্মবিশ্বাস ফাইনালে জ্বালানি হিসেবে কাজ করবে।