advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পিপলসের অবসায়নে আর্থিক খাতে প্রভাবের আশঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক
১২ জুলাই ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৯ ০০:১৪
advertisement

আর্থিক খাতের প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিংয়ের কার্যক্রম বন্ধ করার উদ্যোগ নেওয়ার ফলে নেতিবাচক প্রভাব পড়ার আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা। ঋণ বিতরণে অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগে এইট অবসায়নের সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বহুদিন প্রতিষ্ঠানটি আমানতকারীর অর্থ ফেরত দিতে পারছে না। এ ছাড়া অন্যান্য অনিয়মের তথ্যসহ সার্বিক পরিস্থিতি তুলে ধরে সম্প্রতি অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে চিঠি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানটি অবসায়নে সম্মতি দেয় অর্থ মন্ত্রণালয়। শিগগিরই অবসায়ন চেয়ে উচ্চ আদালতে আবেদন করবে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

এ বিষয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, দুর্নীতি ও খেলাপিতে পরিপূর্ণ প্রতিষ্ঠানটিকে অবসায়নের সিদ্ধান্ত যৌক্তিক। তবে এ অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের উপযুক্ত বিচার হওয়া উচিত। পাশাপাশি অন্যান্য দুর্বল আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকেও সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেন এ অর্থনীতিবিদ। অপরদিকে আর্থিক খাতে এ সিদ্ধান্তের নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে বলেও মনে করছেন তিনি।

পুঁজিবাজার বিশ্লেষক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আবু আহমেদ বলেন, এ সিদ্ধান্তে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ওপর আমানতকারীদের আস্থা কমে যাবে। আমানত পেতে অতিরিক্ত সুদ হার অফার করতে হবে। ব্যবসার খরচ বাড়বে। ফলে ক্ষতির সম্মুখীন হবে আর্থিক খাত।

advertisement