advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তসলিমা আরও এক বছর ভারতে থাকতে পারবেন

আমাদের সময় ডেস্ক
২২ জুলাই ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২২ জুলাই ২০১৯ ০১:২০
advertisement

নির্বাসনে থাকা বাংলাদেশের বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনের ভারতে থাকার মেয়াদ আরও এক বছর বাড়িয়েছে দেশটির সরকার। গতকাল রবিবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ সিদ্ধান্তের কথা জানায়। তসলিমা ২০০৪ সাল থেকে টানা ভারতে বসবাস করছেন।

সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে ভারতীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তসমিলার ভারতে বসবাসের মেয়াদ আরও এক বছর বাড়িয়ে ২০২০ সালের জুলাই পর্যন্ত করা হয়েছে। ৫৬ বছর বয়সী এই লেখিকার ভারতে বসবাসের মেয়াদ তিন মাস বাড়ানো হয়েছিল গত সপ্তাহে। তখনই তিনি টুইট করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে অনুরোধ করেন মেয়াদ এক বছরের জন্য বাড়াতে।

১৬ জুলাই টুইটে তসলিমা লেখেন, ‘মাননীয় অমিত শাহজি, আমি অকপটে আপনাকে ধন্যবাদ জানাই, আমার বসবাসের অনুমতি বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু আমি চমকে গিয়েছি মাত্র ৩ মাসের জন্য। আমি ৫ বছরের জন্য আবেদন করলে ১ বছরের জন্য মেয়াদ বাড়ানো হয়। মাননীয় রাজনাথজি আমাকে কথা দিয়েছিলেন আমাকে ৫০ বছরের জন্য মেয়াদ বাড়িয়ে দেওয়া হবে। ভারত আমার একমাত্র বাড়ি। আমি নিশ্চিত আপনি আমাকে উদ্ধার করবেন।’

১৭ জুলাইয়ের টুইটে তিনি আরও লেখেন, ‘যখনই আমি ৫ বছরের জন্য ভারতে বসবাসের অনুমতি চাই, আমাকে অনুমতি দেওয়া হয় ১ বছর। এবার আমি ৫ বছরের জন্য মেয়াদ বাড়ানোর অনুমতি চাওয়ায় দেওয়া হলো ৩ মাসের অনুমতি। আশা করি মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমার বসবাসের অনুমতি পুনর্বিবেচনা করে অন্তত ১ বছর করে দেবেন।’

১৯৯৪ সালে ইসলামবিরোধী মন্তব্যের অভিযোগে কট্টরপন্থিদের প্রাণনাশের হুমকিতে দেশ ছাড়েন তসলিমা। এর পর থেকে তিনি গত দুই দশকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের নানা দেশ ঘুরে ভারতে এসে থিতু হয়েছেন। তিনি ভারতের নাগরিক হওয়ার জন্য আবেদন করলেও বিষয়টিতে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি দেশটির সরকার। খবর এনডিটিভির।

advertisement