advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

২০১৯ সালের প্রথমার্ধে হুয়াওয়ের আয় বৃদ্ধি ২৩.২ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১ আগস্ট ২০১৯ ০০:২৮ | আপডেট: ১ আগস্ট ২০১৯ ০০:৩২
advertisement

হুয়াওয়ে ২০১৯ সালের প্রথমার্ধের বাণিজ্যিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। গত মঙ্গলবার চীনের শেনজেনে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করে প্রতিষ্ঠনটি। এতে দেখা যায়, গত ছয় মাসে হুয়াওয়ে আয় হয়েছে ৪০১.৩ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ান যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২৩.২ শতাংশ বেশি। পাশাপাশি মূল মুনাফার পরিমাণ ৮.৭ শতাংশ।

হুয়াওয়ের চেয়ারম্যান লিয়াং হুয়ার মতে, বরাবরের মতোই হুয়াওয়ে যথাযথ পরিচালনা ও সব অর্থনৈতিক সূচকে ভাল মান ধরে রাখার মধ্য দিয়ে খুবই দক্ষতার সঙ্গে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে যার ফলশ্রুতিতেই ২০১৯ সালের প্রথমার্ধে হুয়াওয়ের ব্যবসা বেশ এগিয়েছে। আজ বুধবার হুয়াওয়ে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যামে এসব তথ্য জানিয়েছে।

এই সময়ে ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক পণ্য উৎপাদন ও আন্তর্জাতিক বিপণন, অপটিক্যাল ট্রান্সমিশন, ডেটা কমিউনিকেশনস, আইটি এবং অন্যান্য পণ্যক্ষেত্রের আয় থেকে হুয়াওয়ের ক্যারিয়ার ব্যবসার আয় হয়েছে ১৪৬.৫ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ান। এ ছাড়া হুয়াওয়ে এখন পর্যন্ত ফাইভ জি স্থাপনের জন্য ৫০টি বাণিজ্যিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে এবং বিশ্ববাজারে এক লাখ ৫০ হাজারটি বেইজ ষ্টেশন পণ্য প্রেরণ করেছে।

হুয়াওয়ের এন্টারপ্রাইজ ব্যবসায়, হুয়াওয়ের আয় হয়েছে ৩১.৬ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ান। এ ছাড়া হুয়াওয়ে ক্লাউড, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, ক্যাম্পাস নেটওয়ার্ক, ডেটা সেন্টার, ইন্টারনেট অফ থিংস এবং ইন্টিলিজেন্ট কম্পিউটিংসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে আইসিটি পোর্টফোলিওকে প্রতিনিয়ত উন্নত করে চলেছে। হুয়াওয়ে এখনো সরকার ও ইউটিলিটি গ্রাহকসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক খাত যেমন ফাইন্যান্স, যোগাযোগব্যবস্থা, এনার্জি ও অটোমোবাইল খাতের গ্রাহকদের কাছেও একটি বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠানের নাম।

হুয়াওয়ের কনজ্যুমার ব্যবসার ক্ষেত্রে আয় পৌঁছেছে ২২০.৮ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ানে এবং স্মার্টফোন শিপমেন্টের (অনার ফোনসহ) সংখ্যা পৌঁছেছে ১১৮ মিলিয়নে যা গত বছরের তুলনায় ২৪ শতাংশ বেশি। এ ছাড়া তৈরিকৃত ট্যাবলেট, পিসি এবং ওয়্যারেবলস শিপমেন্ট ও বৃদ্ধি পেয়েছে ক্রমাগত হারে। ব্যবহারকারীদের আরও উন্নত বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন ডিভাইস সরবরাহ করা এবং ডিভাইস ব্যবহারের অভিজ্ঞতাকে আরও ভাল করতে হুয়াওয়ে তাদের ডিভাইস ইকোসিস্টেমকে আরও উন্নত করছে।

এখন পর্যন্ত, হুয়াওয়ে মোবাইল সার্ভিস ইকোসিটেমে আট লাখ রেজিস্টার্ড ডেভেলপার এবং বিশ্বব্যাপী ৫০০ মিলিয়ন গ্রাহক রয়েছে।

হুয়াওয়ের চেয়ারম্যান লিয়াং বলেন, মে মাস থেকে আমাদের আয় দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। বছরের প্রথমার্ধে আমরা যে ভিত্তি তৈরি করেছি এর ফলে এন্টিটি লিস্টে থাকা সত্তেও আমরা এমন উন্নয়ন দেখতে সক্ষম হয়েছি। তার মানে এই নয় যে আমরা সামনে কোন বাঁধার সম্মুখীন হবো না। হয়ত আমরা সামনে বাঁধার সম্মুখীন হবো এবং তা সাময়িকভাবে হয়ত আমাদের ব্যবসার উন্নয়নেও প্রভাব ফেলবে।

এ সময় তিনি আরও বলেন, কিন্তু আমরা অবশ্যই থাকব। আমরা জানি ভবিষ্যৎ আমাদের জন্য কী নিয়ে অপেক্ষা করছে এবং আমরা সেই অনুযায়ী বিনিয়োগ করে যাব, যার মধ্যে রয়েছে এই বছরে আর অ্যান্ড ডি সেক্টরে ১২০ বিলিয়ন চাইনিজ ইউয়ান বিনিয়োগের পরিকল্পনা। আমরা এই সব চ্যালেঞ্জগুলি মোকাবিলা করব এবং আমি বিশ্বাস করি হুয়াওয়ে এই সব খারাপ সময়কে পেছনে ফেলে উন্নয়নের নতুন ধারায় প্রবেশ করবে।

 

advertisement