advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আবারও পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে বিশাল উল্কাখণ্ড

প্রযুক্তি সময় ডেস্ক
৭ আগস্ট ২০১৯ ১০:৫২ | আপডেট: ৭ আগস্ট ২০১৯ ১১:৫২
advertisement

মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে আবারও পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে তীব্রগতির প্রকাণ্ড ওই উল্কাখণ্ড। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছে, আগামী ১০ আগস্ট, ঘণ্টায় ১৬ হাজার ৭৪০ কিলোমিটার বেগে পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসতে চলেছে উল্কাখণ্ড 2006 QQ23।

তবে এবারের উল্কাটি পৃথিবীকে হালকা ধাক্কা দিতে পারে, তাই এটি নিয়ে বিশেষ চিন্তা নেই বলে জানিয়েছেন নাসার দুই বিজ্ঞানী। তাদের মতে, পৃথিবী থেকে ৭ দশমিক ৪ মিলিয়ন কিলোমিটার দূরে থাকা এ উল্কাটি পৃথিবীর দিকে ধেয়ে এলেও, অনেকটা দূর দিয়ে বেরিয়ে যাবে।

সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, প্রতি বছরই ছয়টি করে ছোটবড় উল্কা ধেয়ে আসে পৃথিবীর দিকে। সেগুলো কোনোটা পৃথিবীকে মারাত্মকভাবে ক্ষতি করতে পারে, এমন উল্কাখণ্ডও হতে পারে। তবে এটাই স্বস্তির আগামী দিনে যেটি পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে, সেটি মানবজাতিকে ধ্বংস করতে পারবে না।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) পৃথিবীর খুব কাছ দিয়ে চলে যায় একটি বিশাল উল্কাখণ্ড। নাসার রিপোর্ট অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার সকালে পৃথিবীর সঙ্গে একটি বিশাল উল্কাখণ্ডের সংঘর্ষ হতে গিয়েও হয়নি। বিশাল ওই উল্কাখণ্ডটি প্রায় ১৮১ বর্গ ফুটের। উল্কাখণ্ডটির নাম দেওয়া হয় ‘২০১৯ অন’।

নাসা জানায়, এ সুবিশাল উল্কাখণ্ডটি পৃথিবী লক্ষ্যে বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী ৭টা ২৩ মিনিটে ঘণ্টায় প্রায় ১০ হাজার ৪০০ মাইল বেগে ছুটে আসে। গত ৬ জুলাই এ বিশালাকার উল্কাপিণ্ডের হদিস পায় নাসা। তবে যেভাবেই হোক, এ বিশাল উল্কার সঙ্গে সংঘর্ষ হয়নি পৃথিবীর।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, মধ্যাকর্ষণ শক্তির জেরে বার বার পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে উল্কাখণ্ড। তবে পৃথিবীর ভাগ্যটা এতই ভালো যে, বার বার ধেয়ে এলেও বেঁচে যাচ্ছে এই নীল গ্রহ। কিন্তু সেই ভাগ্য কতবার সহায় হবে, তা বলা মুশকিল।

advertisement