advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রাসেলের সাক্ষাৎকারে সন্তুষ্ট বিসিবি, ঈদের আগেই কোচের নাম ঘোষণা

ক্রীড়া প্রতিনিধি
৭ আগস্ট ২০১৯ ১৯:১৪ | আপডেট: ৭ আগস্ট ২০১৯ ২০:৪০
advertisement
advertisement

বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচের পদ এখনো শূন্য। দুই দিন আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি জানিয়েছিলেন অল্প কিছুদিনের মধ্যেই নির্বাচিত করা হবে প্রধান কোচ। এরই মধ্যে সাক্ষাৎকার দিতে ঢাকায় এসেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো।

আজ বুধবার বিকেলে বেক্সিমকোতে তার সাক্ষাৎকার গ্রহণের পর এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। তিনি বলেন, ‘রাসেল ডোমিংগোর সাক্ষাৎকারে আমরা স্যাটিসফাইড। তিনি আমাদেরকে প্রেজেন্টেশন দিয়েছেন; কীভাবে বাংলাদেশ টিমের সঙ্গে কাজ করবেন তা নিয়ে। এতে আমরা সন্তুষ্ট।’

জালাল আরও বলেন, ‘ঈদের আগেই আমরা জাতীয়দলের প্রধান কোচের নাম ঘোষণার চেষ্টা করব।’ রাসেল ছাড়া আরও দুজন কোচ পদে সাক্ষাৎকারের জন্য আসবেন বলেও জানান বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান।

এর আগে বুধবার সকালে ঢাকা পৌঁছান রাসেল ডোমিঙ্গো। তিনি ২০১২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে কোচিংয়ের যাত্রা শুরু করেন। পরের বছরই ২০১৩ সালে তিনি গ্যারি কারেস্টেনের জায়গায় সকল ফরম্যাটে তিনি দায়িত্ব নেন। এর আগে আরেক দক্ষিণ আফ্রিকান বোলার শার্ল ল্যাঙ্গাভেল্টকে দুই বছরের চুক্তিতে বোলিং কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয় বিসিবি।

বিশ্বকাপের পর বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ স্টিভ রোডসের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত থাকার কথা থাকলেও মেয়াদ শেষে হওয়ার আগেই তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

২০১৮ সালের ২২ জুন থেকে মাশরাফীদের কোচের দায়িত্বে ছিলেন রোডস। প্রায় ১৩ মাস কাজ করেছেন টাইগারদের নিয়ে। কিন্তু বিশ্বকাপে হতশ্রী পারফর্মেন্সের কারণে পূর্ণ মেয়াদ থাকতে পারলেন না। এবারের বিশ্বকাপ থেকে বাংলাদেশ বিদায় নেয় শেষ চারে ওঠার আগেই। আট ম্যাচ খেলে তিন জয়ে সাত পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান আট নম্বরে।

কাউন্টি দল ওরচেস্টারশায়ারের দায়িত্ব পালন করা এই কোচ ইংল্যান্ডের হয়ে খেলেছেন ১১ টেস্ট আর ৯ ওয়ানডে। ক্রিকেট ক্যারিয়ার খুব বেশি বর্ণাঢ্য নয়। তবে কোচ হিসেবে নাম-ডাক ভালোই আছে। সাকিব আল হাসান ওরচেস্টারশায়ারে খেলার সময়ও পেয়েছিলেন রোডসকে।

২০১০ ও ২০১১ সালে কাউন্টি দল ওরচেস্টারশায়ারে খেলার সময়ই রোডসকে কাছ থেকে দেখেছেন সাকিব। দলটির ‘ডিরেক্টর অব ক্রিকেট’ ছিলেন রোডস। টম মুডি দায়িত্ব ছাড়ার পর ২০০৫ সালের মে’তে ওরচেস্টারশায়ারের কোচ হিসেবে নিয়োগ পান। এরপর ২০০৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেছেন ক্লাবের ক্রিকেট ডিরেক্টর হয়ে। এরপরেই দায়িত্ব নেন বাংলাদেশের।

advertisement