advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তিন দিনে সড়কে ৩০ জনের প্রাণহানি

আমাদের সময় ডেস্ক
১৫ আগস্ট ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৫ আগস্ট ২০১৯ ০০:০৭
advertisement

গ্রামের বাড়িতে ঈদ উদযাপন শেষে স্বজনদের নিয়ে আর ঢাকায় ফেরা হলো না কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলা বিএনপির সভাপতি বিশিষ্ট আয়কর আইনজীবী ফরিদ উদ্দিন আহমেদের (৬৫)। গত সোমবার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুন্সীগঞ্জের ভবেরচর এলাকায় মর্মান্তিক একটি সড়ক দুর্ঘটনায় দেড় বছর বয়সী নাতনি মাসকুরা আক্তারসহ তিনি নিহত হয়েছেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তার স্ত্রী, ছেলে, ছেলের বউ ও গাড়িচালককে

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ছাড়া ঈদুল আজহার তিন দিনের ছুটিতে সড়কে ঝরেছে এক বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রীসহ আরও ২৮ তাজা প্রাণ। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকায় ৪, বগুড়ায় ৩, রংপুরে ৩, টাঙ্গাইলে ৩, গাইবান্ধায় ২, গোপালগঞ্জে ২, সিরাজগঞ্জে ২, নরসিংদীতে ২, মুন্সীগঞ্জে ২ ও নওগাঁয় ২ জন এবং যশোরে চৌগাছা, নেত্রকোনার কেন্দুয়া, পটুয়াখালীর কলাপাড়া, চট্টগ্রামের রাউজান ও ময়মনসিংহের ফুলপুরে একজন করে নিহত হন। নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ

ঢাকা : এদিকে রাতে ভাটারা নতুন বাজার এলাকার গৃহবধূ রিমভি ঈদের দিন স্বামী-সন্তানসহ ঘুরতে বের হয়েছিলেন। রাতে উত্তর বাড্ডা ফুজি টাওয়ারের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি পিকআপভ্যানের ধাক্কায় রাস্তার ওপর ছিটকে পড়েন রিমভি। এ সময় একটি বাস তার ওপর দিয়ে উঠিয়ে দেয় চালক। এতে আহত হন স্বামী-সন্তানসহ ৩ জনই। পথচারীরা স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাতেই রিমভিকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

একই এলাকার নুরুল আলমের ছেলে সোহেল সোমবার রাত পৌনে ১টার দিকে দূর-সম্পর্কের ভাই কবিরকে সঙ্গে নিয়ে মোটরসাইকেলে ঘুরতে বের হন। শান্তিনগরে ফ্লাইওভার থেকে নেমে লাজ ফার্মার সামনের মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইল্যান্ডের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়েন তারা। এতে সোহেল গুরুতর আহত হন। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রাত ১টায় সোহেলকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

গত মঙ্গলবার বিকালে বিমানবন্দর এলাকায় দুই বাসের মাঝে চাপা পড়ে মো. সেলিম (৩৩) নামে ইনকাম ট্যাক্স অফিসের অফিস সহকারী মারা যান। তিনি উত্তরা ৪ নম্বর সেক্টরের কর অঞ্চল ৯, ইনকাম ট্যাক্স অফিসের অফিস সহকারী হিসেবে চাকরি করতেন। একই দিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের টোল প্লাজার কাছে বাসের ধাক্কায় নিহত হন অজ্ঞাতপরিচয় এক যুবক।

কুমিল্লা : দেবিদ্বার উপজেলা বিএনপি সূত্রে জানা যায়, অ্যাডভোকেট ফরিদ পরিবারের ৫ সদস্য নিয়ে একটি মাইক্রোবাসে ঢাকায় ফিরছিলেন। ভবেরচর এলাকায় তাদের বহনকারী গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সামনে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাসের ভেতরে ঢুকে পড়ে। এতে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ফরিদের নাতনি মাসরুকা আক্তার মারা যায়। গুরুতর আহত হন ফরিদ, স্ত্রী লুৎফুর নাহার, পুত্র মামুনুর রশিদ, পুত্রবধূ ফাহমিদা সুলতানা ও গাড়িচালক। ঢাকায় নেওয়ার পর রাত সোয়া ৮টার দিকে স্কয়ার হাসপাতালে মারা যান ফরিদ। আশঙ্কাজনক অবস্থায় অন্যদের ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়েছে।

রংপুর : মিঠাপুকুরে ঈদের দিন আনন্দ ভাগাভাগি করতে ৩ বন্ধু একটি ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যানযোগে ঘুরতে বের হন। রাত ৯টার দিকে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের বলদিপুকুর আনোয়ার ঈদগাহ মাঠ এলাকায় ঢাকাগামী একটি নৈশকোচ রিকশাভ্যানটিকে চাপা দেয়। এতে তিন বন্ধু নিহত হন। তারা হলেন- পায়রাবন্দ ইউনিয়নের অভিরাম নুরপুর গ্রামের দুলু মিয়ার ছেলে মনির মিয়া (১৩), তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে রাকিব হোসেন (১৪) ও কায়েস মিয়ার ছেলে শাওন মিয়া (১৪)।

গাইবান্ধা : গাইবান্ধা-সুন্দরগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে মঙ্গলবার রাত পৌনে ১০টার দিকে মাইক্রোবাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালকসহ দুজন নিহত ও ৪ জন আহত হন। নিহতরা হলেন- অটোরিকশার চালক সদর উপজেলার খোলাহাটি গ্রামের মজনু মিয়ার ছেলে খোরশেদ আলম ও লেঙ্গাবাজারের আবুল হোসেনের ছেলে রোমান।

শিবপুর : নরসিংদী-মনোহরদী সড়কের শিবপুর উপজেলার পঁচারবাড়ি নামক স্থানে গত মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে যাত্রীবাহী বাসচাপায় সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক ও এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী নিহত এবং তিনজন গুরুতর আহত হন। নিহতরা হলেনÑ শিবপুর উপজেলার বৈলাব গ্রামের লতিফ মিয়ার ছেলে সিএনজিচালক রিপন মিয়া ও শিবপুর শহীদ আসাদ কলেজিয়েট গার্লস হাইস্কুলের সহকারী শিক্ষক গাজী হারুন অর রশিদের মেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী লামিয়া আক্তার (১৮)।

গোপালগঞ্জ : ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের কাশিয়ানী উপজেলার ফুকরা এলাকায় মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে রাস্তা পার হওয়ার সময় বাসচাপায় নিহত হন অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তি। এর আগে বিকালে একই সড়কের মাঝিগাতী এলাকায় রাস্তা পারপারের সময় বাসচাপায় গুরুতর আহত হন কুলসুম বেগম। কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার মৃত্যু হয়। তিনি কাশিয়ানীর সাহেবের চর গ্রামের মৃত মোসলেমের স্ত্রী কুলসুম বেগম।

টাঙ্গাইল : ঘাটাইল উপজেলার বানিয়াপাড়া এলাকায় গত মঙ্গলবার দুপুরে যাত্রীবাহী একটি বাস উল্টে এক যাত্রী নিহত ও ১৩ জন আহত হন। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতের পরিচয় জানা যায়নি। এদিকে ঈদের ছুটিতে ঘোরাঘুরির সময় ঘাটাইল উপজেলার ছামানের বাজার এলাকায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলে ৩ জন গুরুতর আহত হন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আশরাফ আলী নামের একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি উপজেলার সন্ধ্যাপুর ইউনিয়নের দিয়া বাড়ি গ্রামের নান্নু মিয়ার ছেলে। এ ছাড়া গতকাল ভোরে মধুপুর উপজেলার টেলকি এলাকায় অজ্ঞাত গাড়িচাপায় নিহত হন মানসিক ভারসাম্যহীন এক ব্যক্তি। তার পরিচয় জানা যায়নি।

নাটোর : বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের মহিষভাঙ্গা মোড়ে বুধবার সকালে মাইক্রোবাস ও পুলিশের পিকআপের সংঘর্ষে মাইক্রোবাসের চালক শাজাহান আলী নিহত এবং বড়াইগ্রাম সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) হারুনার রশীদসহ তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। শাজাহান আলীর বাড়ি মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার কাচারীঘাট গ্রামে।

সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার কাঠেরপুল-চান্দাইকোনা সড়কের কামালের চক এলাকায় গত রবিবার ভোরে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় ভ্যানযাত্রী রায়গঞ্জ উপজেলার পূর্বলক্ষ্মীকোলা বাজারের বাসিন্দা সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী মোরশেদা খাতুন নিহত হন।

চৌগাছা : যশোরের চৌগাছা উপজেলার হাজি সরদার মর্তুজ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে ঈদের দিন বিকালে দ্রুত গতির মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বাইসাইকেল আরোহী বৃদ্ধ ফজলুর রহমান গুরুতর আহত হন। গত মঙ্গলবার ভোরে যশোর জেনারেল হাসপাতালে তিনি মারা যান। ফজলুর রহমান চৌগাছা পৌরসভার চাঁদপুর গ্রামের মৃত ইমান আলী ধনীর পুত্র।

কেন্দুয়া : নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার মাসকা ইউনিয়নের মাসকা গ্রামে গত মঙ্গলবার বিকালে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশের গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মিলন মিয়া নামে এক ব্যক্তি নিহত হন। তিনি ওই গ্রামের আব্বাস মিয়ার পুত্র। ওইদিন ছিল মিলন মিয়ার ছোট ভাই নয়ন মিয়ার বিয়ে। উপজেলার রোয়াইলবাড়ী ইউনিয়নের সহিলাটি গ্রামের হেলাল উদ্দিনের কন্যা মাজেদার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সেরে নববধূকে নিয়ে বরযাত্রীরা বাড়ির পথে যাত্রা করেন। আর মিলন মিয়া আরেক মোটরসাইকেলে দুই আত্মীয়কে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। কিন্তু বাড়ি ফেরার আগেই সড়কে প্রাণ দিতে হলো।

কলাপাড়া : পটুয়াখালীর কলাপাড়া-কুয়াকাটা সড়কের শেখ কামাল সেতু সংলগ্ন নীলগঞ্জ এলাকায় গত মঙ্গলবার রাতে অটোরিকশার ধাক্কায় যাত্রীবাহী মোটরসাইকেলের যাত্রী মনির হোসাইন গুরুতর আহত হন। গতকাল সকালে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। তার বাড়ি বাউফলে ধুলিয়া গ্রামে।

নওগাঁ : ধামইরহাটে গতকাল বেলা ১১টার দিকে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় এক বৃদ্ধ নিহত হন। উপজেলার চকময়রাম মোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম মোহাম্মদ আলী। এ ছাড়া মান্দা উপজেলার দেলুয়াবাড়ী-চৌবাড়িয়া রাস্তার মহানগর নামক স্থানে মঙ্গলবার রাতে একটি ত্রি হুইলার উল্টে আকলিমা বিবি নামে এক নারী নিহত এবং স্বামী ও দুই সন্তান গুরুতর আহত হন।

মুন্সীগঞ্জ : ঈদের দিন বিকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের গজারিয়া উপজেলার ভাটেরচর এলাকায় দ্রুতগতির একটি গাড়ি পথচারী আবু তাহেরকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। একই দিন রাতে ভবেরচর এলাকায় অজ্ঞাত পরিচয় এক নারীকে একটি দ্রুত গতির গাড়ি চাপা দেয়। এতে ওই নারী নিহত হন।

বগুড়া : শাজাহানপুর উপজেলায় দুই বাসের সংঘর্ষে দম্পতিসহ ৩ জন নিহত হন। একই দুর্ঘটনায় সময় আহত হন ২০ জন। বুধবার বেলা দেড়টার দিকে শাজাহানপুর উপজেলার আড়িয়া বাজারের সন্নিকটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেনÑ রংপুর সদর উপজেলার কামার কাছনা গ্রামের আবদুল্লাহ আল কাফীর ছেলে খায়রুল ইসলাম যাদু ও তার স্ত্রী ঢাকা আইডিয়াল প্রিপারেটরি স্কুলের শিক্ষিকা রানু বেগম এবং অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তি। নিহত দম্পতির দুই সন্তান যথাক্রমে মিরাজ হোসেন (২২) ও জান্নাত খাতুন (১১) বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

রাউজান : ঈদুল আজহার দিন সকাল ৯টার দিকে হাইস ও সিএনজি ট্যাক্সির সংঘর্ষে প্রাণ হারান রাউজানের ট্যাক্সিচালক আবুল হাশেম। চট্টগ্রাম-হাটহাজারী মহাসড়কের ইসলামিয়া হাট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আবুল হাশেম রাউজান পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ছিটিয়াপাড়া এলাকার মৃত জহির আহমেদের পুত্র।

ফুলপুর : ঢাকা-হালুয়াঘাট মহাসড়কের ফুলপুর উপজেলার ইমাদপুর বড় মসজিদ সংলগ্ন স্থানে গতকাল বুধবার বাসের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে দ্রুতগামী একটি সিএনজি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে ৮ জন আহত হন। ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর আবুল হোসেন নামে এক শ্রমিক মারা যান। তিনি উপজেলার ইমাদপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে। এর আগে ময়মনসিংহ-শেরপুর মহাসড়কে ফুলপুর উপজেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৫০ জন আহত হন। বাঁশাটী মধ্যপাড়া নামক স্থানে মঙ্গলবার দুপুরে দুই বাসের সংঘর্ষে নারী ও শিশুসহ ৪০ যাত্রী আহত হন। বুধবার সকালে উপজেলার ইমাদপুর নামক স্থানে একটি সিএনজি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাসকে ধাক্কা দিলে ১০ জন আহত হন।

advertisement