advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

না শোধরালে আইনগত ব্যবস্থা মেয়র আতিক

নিজস্ব প্রতিবেদক
২১ আগস্ট ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২১ আগস্ট ২০১৯ ০১:৩৮
advertisement

এডিস মশার বংশবিস্তার রোধে বাড়ির মালিকদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। তবে এর পরও না শোধরালে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন মেয়র। গতকাল এডিস মশা নির্মূলের লক্ষ্যে পরিচালিত চিরুনি অভিযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন ডিএনসিসি মেয়র।

গতকাল গুলশানের শহীদ ডা. ফজলে রাব্বী পার্ক থেকে ওয়ার্ডভিত্তিক এ চিরুনি অভিযানের উদ্বাধন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ।

জানা যায়, ১৯ নম্বর ওয়ার্ড (গুলশান-বনানী এলাকা) থেকে এ অভিযানের পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু হয়। এ ওয়ার্ডকে ১০টি ব্লকে ভাগ করা হয়; আবার প্রতিটি ব্লককে ১০টি সাব-ব্লকে ভাগ করা হয়।

প্রতিটি সাবব্লকে ১০ জন করে কর্মী কাজ করবেন। এভাবে আগামী ১০ দিনে এ ওয়ার্ডটিতে এডিস মশার প্রজননস্থল ধ্বংসকরণ ও বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান সম্পূর্ণ হবে। এ ওয়ার্ডের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ডিএনসিসির অন্যান্য ওয়ার্ডেও এ অভিযান পরিচালনা করা হবে।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, অপরিচ্ছন্ন মানুষ আলোকিত মানুষ হতে পারে না। সিটি করপোরেশনের পক্ষে সব জায়গায় যাওয়া সম্ভব না। এসব থেকে নিস্তার পেতে হলে আশপাশের সবকিছু আমাদেরই পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা বাসাবাড়িতে গিয়ে এডিস মশার লার্ভা পেলে তাকে সতর্ক করব এবং ‘সাবধান! এ বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে’ লেখা একটি স্টিকার লাগিয়ে দেব।

পরে গুলশান ১ নম্বর সড়কের একটি বাণিজ্যিক ভবনের ছাদে পরিত্যক্ত একটি কমোডে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যায়। এ সময় ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার ভবনের মালিককে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে বিনাশ্রম ৩০ দিনের কারাদ- প্রদান করেন। পরে মেয়র এবং অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বাড়ির সামনে একটি স্টিকার লাগিয়ে দেন।

advertisement