advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সেপটিক ট্যাংকে পোশাককর্মীর গলিত লাশ

গাজীপুর প্রতিনিধি
২৪ আগস্ট ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৪ আগস্ট ২০১৯ ০১:১৪
advertisement

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে অপহরণের পর ১৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ না পেয়ে এক পোশাক শ্রমিককে হত্যা করেছে দর্বৃত্তরা। ঘটনার ১৮ দিন পর সেপটিক ট্যাংক থেকে ওই গলিত লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের নাম অহিরুল ইসলাম। তিনি পাবনার আটঘড়িয়া থানার ভরতপুর গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে। অহিরুল দীর্ঘদিন যাবৎ কালিয়াকৈর পৌরসভার কাঠাতলা এলাকার আবদুল মালেকের বাড়িতে ভাড়া থেকে স্থানীয় ময়েজ উদ্দিন টেক্সটাইল মিলে চাকরি করতেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ইয়াকুব শেখ ও তার ছেলে কামরুল শেখ ও ইয়াকুব শেখের ভাড়াটিয়া শামীম হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

কালিয়াকৈর থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, গত ৬ আগস্ট বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে ভাড়া বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয় অহিরুল ইসলাম। পরে স্বজনদের মোবাইলে অহিরুলকে অপহরণ করা হয়েছে বলে জানায় দুর্বৃত্তরা। মুক্তিপণ হিসেবে ১৫ লাখ টাকা না দিলে তাকে হত্যার হুমকি দেয় অপহরণকারীরা। এ ঘটনায় ২০ আগস্ট নিহতের চাচাতো ভাই পাঞ্চাব আলী কালিয়াকৈর থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

মামলার পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীয় ইয়াকুব শেখের বাড়ির ভাড়াটিয়া শামীম হোসেনকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে অভিযান চালিয়ে চান্দরা এলাকার ইয়াকুব শেখের বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে তার গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

advertisement