advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নাটোরের হাটে বিক্রেতা আছে ক্রেতা নেই

আল মামুন, নাটোর
২৪ আগস্ট ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৪ আগস্ট ২০১৯ ০১:১৪
advertisement

উত্তরাঞ্চলের বৃহত্তম নটোর চামড়া হাটে গতকাল শুক্রবার নতুন করে প্রায় ১ লাখ পিস চামড়া এলেও ক্রেতা না থাকায় বিপাকে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা। এর আগে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বাজারে ছিল দেড় লাখ পিস চামড়া। ট্যানারি মালিকরা চামড়া না কেনায় বিপাকে পড়েছেন বিক্রেতারা। এদিকে গত বৃহস্পতিবার এফবিসিসিআইয়ের সমঝোতা বৈঠক সফল না হাওয়ায় জেলার চামড়া ব্যবসায়ীরা ট্যানারি মালিকদের কাছ থেকে বকেয়াও পাননি।

নাটোরের বাজারে আসা চামড়া ব্যবসায়ী গোপালগঞ্জের পরিতোষ বিশ্বাস ও বরিশালের পিপলু শিকদার জানান, হাটে চামড়ার ক্রেতা না থাকায় বিপাকে পড়েছেন তারা। হোটেলে খাবার টাকাও নেই তাদের কাছে। এ চামড়া কবে বিক্রি হবে আর কবে বাড়ি ফিরবেন তার নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারছে না।

স্থানীয় আড়তদার আবদুর রশিদ জানান, বৃহস্পতিবার ঢাকায় চামড়া ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ট্যানারি মালিকদের বৈঠক সমঝোতা ছাড়াই শেষ হয়। ফলে নাটোরের ব্যবসায়ীরা তাদের পাওনা প্রায় ৬৫ কোটি টাকা এখনো পাননি। ফলে তারা চামড়া কিনতে পারছেন না। এ ছাড়া ট্যানারি মালিকরাও আসেনি। যার পরিপ্রেক্ষিতে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

নাটোর চামড়া ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হোসেন আক্কু জানান, ৩১ আগস্ট থেকে ট্যানারি মালিকরা বকেয়া টাকা প্রদান করবেন। এর পর থেকে নাটোরের চামড়া বাজার স্বাভাবিক হবে জানান স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

নাটোর জেলায় প্রতিবছর ঈদের পর দেশের ৩২ জেলার ১০ থেকে ১২ লাখ পিস চামড়া বিক্রি হলেও এবার এ পর্যন্ত এসেছে নাটোর জেলায় প্রায় আড়াই লাখ পিস চামড়া।

advertisement