advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

১৫ কেজি ওজন কমেছে ‘বাবা’ রাম রহিমের!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২৫ আগস্ট ২০১৯ ১৫:১৮ | আপডেট: ২৫ আগস্ট ২০১৯ ১৫:২৪
advertisement

এক সময় ছিলেন রাজার হালে। সেসময় তাকে সাহায্য করতেন কত শত ভক্ত। এখন দিন কাটছে জেলে। তাও আবার মালির কাজ করে। বলছিলাম, এক সময়ের নামজাদা স্বঘোষিত গুরু গুরমিত রাম রহিমের কথা। সম্প্রতি মালির কাজের সুফল পেয়েছেন এই ‘বাবা’।

জেল সূত্রের খবর, জেলে মালির কাজ করে প্রায় ১৫ কেজির মতো ওজন কমিয়ে ফেলেছেন রাম রহিম। আর এই দুই বছরে জেলে তিনি উপার্জন করেছেন ১৮ হাজার টাকা।

ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট ৫০ বছর জন্মদিন পালন করেই ডেরা হেড কোয়ার্টার থেকে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন গুরমিত রাম রহিম। পরে পঞ্চকুলায় সিবিআই কোর্টের নির্দেশে ২০ বছর জেল হয় তার। তবে জেলের ভেতরেও বাকি কয়েদিদের মধ্যে সেই ‘বাবা’ নামেই আবার পরিচিত হয়েছেন এই রাম রহিম।

জেল ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গ্রেপ্তারের সময় গুরমিত যখন প্রথম জেলে এসেছিল, সেই সময়ে তার ওজন ছিল ১০৫ কেজি। দুই বছর ঘুরতেই এখন তার ওজন ৯০ কেজি।

আলু, উচ্ছে, টমেটো ইত্যাদি ফসল জেলের মধ্যেই ফলাচ্ছেন রাম রহিম। এ কাজ তার ওজন কমাতে সাহায্য করেছে বলে জানিয়েছে জেলের পুলিশরা।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, জেলে প্রতি সপ্তাহে পুরোনো জামা-কাপড় দিয়ে নতুন কুর্তা-পাজামা হাতে পান রাম রহিম। শুরুর দিনগুলোতে জেলের ভেতরের পরিস্থিতির সঙ্গে একেবারে খাপ খাওয়াতে পারছিলেন না তিনি। সেসময় বেশ কিছু ডাক্তার প্রতিনিয়ত রীতিমতো চেকআপের জন্য আসতেন রাম রহিমের কাছে। কিন্তু সেই অবস্থা থেকে এখন তিনি কাটিয়ে উঠেছেন।

বিগত দুই বছরে সুনারিয়া জেল পুরো নিরাপত্তার মোড়কে ঢেকে ফেলা হয়েছে। ঠিক যেন কোনো সেলিব্রিটিই রয়েছেন ভেতর। জেলের ৩ কিলোমিটার অবধি কোনো সাংবাদিকও প্রবেশ করতে পারবেন না। এখন পর্যন্ত রোহতাক জেল থেকে পালিতা কন্যা হানিপ্রীত ডেরা মুখ্যর সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে আসেননি বলেও প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

advertisement