advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দেশে ৩০ বছর টাউট-বাটপারদের দল ক্ষমতায় ছিল: মোজাম্মেল হক

ঢাবি প্রতিবেদক
২৬ আগস্ট ২০১৯ ০০:২০ | আপডেট: ২৬ আগস্ট ২০১৯ ০০:২২
পুরোনো ছবি
advertisement

১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের পর থেকে অদ্যাবধি স্বাধীন বাংলাদেশের ৪৯ বছরের মধ্যে ৩০ বছরই দেশের রাষ্ট্রক্ষমতা টাউট-বাটপারদের দলের কাছে ছিল বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে একটি আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

বাংলাদেশ আইন সমিতি কর্তৃক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর যে অবদান, আমরা এখনো বাঙালি জাতির সামনে তুলে ধরতে পারিনি। আজকে ৪৯ বছর ধরে আমরা ডিফেন্সিভ হচ্ছি, অফেনসিভ হতে পারছি না। শুধু আত্মসমর্থন করতে হচ্ছে। ৪৯ বছর চলে গেল। এই ৪৯ বছরের মধ্যে বঙ্গবন্ধু ছিলেন সাড়ে তিন বছর ক্ষমতায়। শেখ হাসিনা আছেন সাড়ে ১৫ বছর। এই ১৯ বছর আমাদের ক্ষমতা। আর ৩০ বছর ছিল জিয়া-এরশাদ-খালেদ, মার্শাল, টাউট বাটপারের দলেরা। যারা ক্ষমতায় ছিল ৩০ বছর। এই ৩০ বছরে তারা দেশকে শুধু পেছনের দিকে নিয়ে গেছে।’

জিয়াউর রহমানকে বঙ্গবন্ধুর প্রত্যক্ষ খুনি উল্লেখ করে মোজাম্মেল হক বলেন, ‘জিয়াউর রহমান যে বঙ্গবন্ধুর প্রত্যক্ষ খুনি এটা যারা আত্মস্বীকৃত খুনি তারাই বলে গেছে। এ ছাড়াও জিয়াউর রহমান ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ দিয়ে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচারের পথ রুদ্ধ করেছিল। কাদের মন্ত্রী বানিয়েছিল? যাদের প্রত্যেকে একাত্তরের স্বাধীনতা যুদ্ধে বিরোধিতা করেছিল। সংবিধান থেকে ধর্ম নিরপেক্ষতা উঠিয়ে দিল। ধর্ম নিরপেক্ষতা উঠিয়ে দিয়ে পাকিস্তানের নাগরিক গোলাম আজমকে এদেশে এনে নাগরিকত্ব দিল। এদেশকে মিনি পাকিস্তান বানানোর জন্য যা যা করণীয় সব করল।’

জাতীয় শোক দিবস অনুষ্ঠানের আয়োজন কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মোল্লা মো. আবু কাওছারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- গৃহায়ণ ও গণপূর্ত বিষয়ক মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি এ কে এম সাহিদুল হক ও বিচারপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। বাংলাদেশ আইন সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মাহপুজুর রহমান আল-মামুন অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।

 

advertisement