advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জি-৭ সম্মেলনে ঝটিকা সফরে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক
২৬ আগস্ট ২০১৯ ১১:১৮ | আপডেট: ২৬ আগস্ট ২০১৯ ১৩:০৭
টুইটারে ছবিটি পোস্ট করেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ
advertisement

শিল্পোন্নত সাতটি দেশের জোট জি-৭ সম্মেলনে হঠাৎ হাজির হয়ে চমক সৃষ্টি করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ। গতকাল রোববার ফ্রান্সের সাগরঘেঁষা শহর বিয়ারিটজে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে অপ্রত্যাশিতভাবে উপস্থিত হন তিনি।  সেখানে তিনি এক পার্শ্ববৈঠকে মিলিত হন।  ওই সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পসহ বিশ্বনেতারা।

আজ সোমবার বিবিসি অনলাইনের খবরে বলা হয়েছে, ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অনির্ধারিত ও সংক্ষিপ্ত এই সফর চমকে দিয়েছে মার্কিন প্রতিনিধিদলকে। ইরানের পারমাণবিক কর্মকাণ্ড সীমিত করার লক্ষ্যে ২০১৫ সালের করা চুক্তি থেকে গত বছর যুক্তরাষ্ট্র নাম প্রত্যাহার করে নেয়।  এর পর থেকেই দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটতে থাকে। 

টুইটারে বৈঠকের সময়ের একটি ছবি প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারিফ। তিনি জানান, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তার ‘গঠনমূলক’ আলোচনা হয়েছে।

জারিফ আরও বলেন, ‘সামনের পথ কঠিন।  এর মধ্যেও চেষ্টা চালানো হচ্ছে।’ জার্মান ও ব্রিটিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গেও এক যৌথ বৈঠকে মিলিত হয়েছেন বলে জানান তিনি।

এর আগে মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ গত শুক্রবার সম্মেলনের দিন সন্ধ্যায় প্যারিসে ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাখোঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

এদিকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এভাবে হঠাৎ হাজির হওয়াকে ঘিরে ভিন্ন ভিন্ন তথ্য পাওয়া যাচ্ছে।  ফ্রান্স কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের জানায়, মার্কিন প্রতিনিধিদলের সম্মতিতেই পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।  কিন্তু মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, তারা এ ঘটনায় বিস্মিত হয়েছেন।

এর আগে গতকাল সকালে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে উত্তেজনা প্রশমনে ফ্রান্সের মধ্যস্থতার চেষ্টাকে নাকচ করে দেন।  তিনি বলেন, ‘যা করার তা আমরা নিজেরাই করব।  কিন্তু আপনারা জানেন, লোকজনকে কথা বলা থেকে বিরত রাখা যায় না।  যারা কথা বলতে চায়, বলুক।’

সপ্তাহজুড়ে চলমান জি-৭–এর ৪৫তম সম্মেলনে অংশ নিয়েছে যুক্তরাজ্য, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্র। শীর্ষ সম্মেলনের আলোচ্যসূচির মধ্যে গুরুত্ব পাচ্ছে পারমাণবিক চুক্তি ও ব্রেক্সিট ইস্যু।

advertisement