advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তরুণীর ২ হাজার বছরের পুরোনো কবরে ‘আইফোন’

অনলাইন ডেস্ক
৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৫:০৭ | আপডেট: ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৫:৫৩
২ হাজার বছর আগেরই সেই ‘আইফোন’
advertisement

দুই হাজার বছরেরও বেশি পুরোনো এক কবরে পাওয়া গেল ‘আইফোন’। রাশিয়ার বৃহত্তম বিদ্যুৎকেন্দ্রের জলাধারের নিচে অবস্থিত এক তরুণীর কবরে আইফোনের মতো দেখতে বস্তুটি খুঁজে পেয়েছেন প্রত্নতত্ত্ববিদরা। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য সান জানিয়েছে, পুরনো এ কবরটির সন্ধান পাওয়া গেছে রাশিয়ার আলা-তে নেক্রোপলিসের কাছে। বিদ্যুৎকেন্দ্রের বাঁধের উজানের পানির ৫৬ ফুট নিচে এই জলাধারে এটির সন্ধান মেলে। এর আশপাশে ১১০টি কবরের সন্ধান মিলেছে। তবে কেউ কেউ বলছেন এখানে ৩২টি কবরের সন্ধান পাওয়া গেছে।

প্রত্নতত্ত্ববিদদের ধারণা, নাতাশা নামে এ ধনাঢ্য তরুণীর কবর এটি। তিনি যিশু খ্রিষ্টের চেয়েও আগে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ২ হাজার ১৩৭ বছর আগে জিওনগু শাসন আমলে জন্ম নেওয়া এ তরুণী দক্ষিণ রাশিয়ার গ্রামীণ অঞ্চলে বসবাস করতেন। নাতাশার আশেপাশের কবরগুলো খ্রিষ্টপূর্ব তৃতীয় শতক থেকে খ্রিস্টীয় প্রথম শতক সময়ের। 

দুই হাজার বছরের পুরনো এই ‘আইফোন’টি কালো রত্ন-পাথর দ্বারা খচিত। এতে দামি পাথরগুলো সারিবদ্ধভাবে বসানো ছিল। আর এটি ওই তরুণীর পোশাকে সাটানো ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। এত পুরোনো কবরে কীভাবে আইফোন পাওয়া গেল তার ব্যাখ্যা দিতে পারেননি প্রত্নতত্ত্ববিদরা।

পুরনো এই ‘আইফোন’ বিষয়ে প্রত্নতত্ত্ববিদ ড. পাভেল লিওস বলেন, ‘নাতাশার কবরটি হুনু-যুগের (জিওনগু)। সেখানে ‘আইফোন’ পাওয়ায় ব্যাপারটি এখন সবচেয়ে আকর্ষণীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ওই কবরের হাড়গোড়ের সঙ্গে বেল্ট বাঁধা ছিল। বেল্টটি চীনের উজহু মুদ্রায় সজ্জিত ছিল। আর সে কারণে এটি কোন সময়ের তা জানতে সুবিধা হয়েছে।‘

অন্যদিকে, রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ ইনস্টিটিউট অব ম্যাটেরিয়াল হিস্ট্রি কালচারের ড. মেরিনা কিউলুনোভাস্কায়া বলেন, ‘আমরা অবিশ্বাস্যরকম ভাগ্যবান, কারণ ধনী হুন যাযাবরদের প্রাচীন কবরগুলো পেয়েছি। আর বিস্ময়কর ব্যাপার হলো কবরগুলোতে ডাকাতেরা হানা দেয়নি।’

আগের দিনে পৃথিবীর বহু জায়গায় স্বর্ণ, হীরাসহ নানা দামি জিনিস দিয়ে মৃতকে সমাহিত করা হতো। এ কবরগুলো খুঁড়ে অনেকেই এসব সম্পদ চুরি করত।

advertisement