advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

‘উন্নত পয়নিষ্কাশন সুবিধা বঞ্চিত এক-তৃতীয়াংশ মানুষ'

নিজস্ব প্রতিবেদক
১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৭:৩৩ | আপডেট: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৭:৫৪
রাজধানীর র‌্যাডিসন ব্লু হোটেলের উৎসব হল এ ‘ন্যাশনাল স্যানিটেশন ইন্ডাস্ট্রি কনসালটেশন ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক কর্মশালায় বক্তব্য দিচ্ছেন এলজিআরডি মো. মন্ত্রী তাজুল ইসলাম
advertisement

দেশের এক-তৃতীয়াংশ মানুষ এখনও উন্নত পয়নিষ্কাশন সুবিধা থেকে বঞ্চিত বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘সরকার ২০৩০ সালের মধ্যে জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বদ্ধপরিকর।  কাজেই টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার ৬ দশমিক ২ অর্জনে সকলের জন্য উন্নত পয়নিষ্কাশন সুবিধা নিশ্চিত করা জরুরি।’ 

আজ বুধবার রাজধানীর র‌্যাডিসন ব্লু হোটেলের উৎসব হলে ‘ন্যাশনাল স্যানিটেশন ইন্ডাস্ট্রি কনসালটেশন ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। 

এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, ‘পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থা পানি ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সঙ্গে সম্পর্কিত। বাংলাদেশের সরকারি ও বেসরকারি খাত সম্মিলিতভাবে কাজ করলে পয়নিষ্কাশন পণ্য ও সেবা প্রদান সহজলভ্য হবে এবং জনসাধারণ উপকৃত হবে।‘

বাংলাদেশে পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থা উন্নয়নে উৎসাহিত করতে স্থানীয় সরকার বিভাগ ও ইউনিসেফ যৌথভাবে দুই দিনব্যাপী এ কর্মশালার আয়োজন করে। কর্মশালায় স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বাংলাদেশি উদ্যোক্তাদের উদ্ভাবিত পয়নিষ্কাশন সামগ্রীর প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় অন্যান্যর মধ্যে বক্তৃতা দেন স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. জহিরুল ইসলাম, বাংলাদেশে সুইজারল্যান্ড দূতাবাসের প্রথম সচিব ডেরেক জর্জ, ফেডারেশন অব বাংলাশে চেম্বারস অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই)-এর প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম, ইউনিসেফ-এর ওয়াশ কর্মসূচির প্রধান ডোরা জনস্টন এবং জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. সাইফুর রহমান।

advertisement