advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রোহিঙ্গাদের ফেরানোর দায়িত্ব মিয়ানমারের

কূটনৈতিক প্রতিবেদক
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০২
advertisement

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেছেন, রোহিঙ্গাদের জন্য ঘরবাড়ি বানানোর দরকার নেই, আগে তাদের ফিরিয়ে নিন। রোহিঙ্গারা যাতে স্বেচ্ছায় ফিরে যেতে পারে, সেই পরিবেশ মিয়ানমারকেই তৈরি করতে হবে। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার দায়-দায়িত্ব শুধু মিয়ানমারের। গতকাল বুধবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের পল্লী কর্মসহায়ক

ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) এসডিজি-৩: সুস্বাস্থ্য ও কল্যাণবিষয়ক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ভাসানচর সাময়িক ব্যবস্থা। অল্প কয়েক দিনের জন্য এটা করা হয়েছে। এটা কোনো সমাধান নয়। এটার সমাধান হচ্ছে মিয়ানমারের লোক মিয়ানমারে ফেরত যাওয়া। আর এ জন্যই আমরা চাব মিয়ানমার সরকার আন্তরিক হোক এবং তাদের লোকগুলোকে তাদের দেশে ফিরিয়ে নিয়ে যাক। সেখানে তারা ব্যর্থ হয়েছে। আমরা জোর করে কাউকে পাঠাব না। তাই যত তাড়াতাড়ি পারুক তাদের বুঝিয়ে নিয়ে যাক।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেনÑ ‘মিয়ানমার সরকার আমাদের বলেছে যে, তারা প্রত্যাবর্তন প্রক্রিয়া করছে। আরেকটা জিনিস হলো সেখানে ঘরবাড়ি তেরি হলো কিনা সেটা দেখার বিষয় না, কারণ আমরা যখন ভারত থেকে এসেছিলাম তখন আমাদের ঘরবাড়ি ছিল কিনা চিন্তা করিনি। ঠিক তেমনি রোহিঙ্গারা যখন এ দেশে এসেছে তখন ঘরবাড়ির কথা চিন্তা করেনি, পালাই পালাই করে চলে এসেছে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য কিছু বাড়িঘর মিয়ানমার সরকার তৈরি করেছে, সেখানে আসলে কী অবস্থা হয়েছে তা দেখাতে আমাদের রাষ্ট্রদূতসহ বিদেশি কূটনীতিকদের নিয়ে যাবে, আগে কোনোদিন রাজি ছিল না এখন রাজি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, রোহিঙ্গারা পালিয়ে আসছে। যখন তাদের যাওয়া শুরু হবে, গিয়ে সেখানে ঘরবাড়ি তৈরি করে নেবে, না গেলে কীভাবে হবে?

পিকেএসএফের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব শেখ ইউসুফ হারুন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন অধ্যয়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. নিয়াজ আহমেদ খান প্রমুখ।

advertisement