advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

উন্নত পয়োনিষ্কাশন সুবিধাবঞ্চিত এক-তৃতীয়াংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০৩
advertisement

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম জানিয়েছেন, দেশের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ মানুষ উন্নত পয়োনিষ্কাশন সুবিধা থেকে বঞ্চিত। তিনি বলেন, সরকার ২০৩০ সালের মধ্যে জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বদ্ধপরিকর। তাই সবার জন্য উন্নত পয়োনিষ্কাশন সুবিধা নিশ্চিত করা জরুরি। গতকাল রাজধানীর হোটেল র‌্যাডিসন ব্লুতে এক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি

এ কথা বলেন। বাংলাদেশে পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থা উন্নয়নে উৎসাহিত করতে স্থানীয় সরকার বিভাগ ও ইউনিসেফ যৌথভাবে দুদিনব্যাপী এ কর্মশালার আয়োজন করে।

এলজিআরডিমন্ত্রী বলেন, পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থা পানি ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সঙ্গে সম্পর্কিত। বাংলাদেশের সরকারি ও বেসরকারি খাত সম্মিলিতভাবে কাজ করলে পয়োনিষ্কাশন পণ্য ও সেবা প্রদান সহজলভ্য হবে। জনসাধারণ উপকৃত হবে।

এদিকে গতকাল রাজধানীর গাবতলী এলাকায় ডিএনসিসি কাঁচাবাজারে পরিচ্ছন্নতার জন্য বেলারুশ থেকে আনা যন্ত্রপাতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের মন্ত্রী বলেন, ঢাকা শহরে বর্তমানে এডিসের প্রকোপ কমলেও গ্রামগঞ্জের জনবসতিপূর্ণ এলাকায় এর প্রাদুর্ভাব হতে পারে। তাই এখন কোনো সুনির্দিষ্ট সময় নয়, বরং সারাবছরই কাজ করা হবে। এ সময় ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ডেঙ্গু আক্রান্ত অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে কম সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে উল্লেখ করে তাজুল ইসলাম বলেন, আমেরিকায় ডেঙ্গুতে এক হাজার লোক মারা গেছে। তার মানে সেখানে এডিস আছে। জাপানে আছে, ইউরোপে আছে। ফিলিপাইনে ৪৯০ জন মারা গেছে। আমাদের এখানে ৬১ হাজার আক্রান্তের মধ্যে মারা গেছেন ৪৭ জন।

advertisement