advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বাংলাদেশেই উৎপাদন হচ্ছে বিশ্বমানের কফি

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:৪৪
আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:৪৪
advertisement

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান নর্থ অ্যান্ড এবং এফএও মনে করে, বাংলাদেশ এখন বিশ্বমানের কফি উৎপাদনে সক্ষম। গতকাল সচিবালয়ে কৃষিমন্ত্রীর অফিসকক্ষে প্রতিষ্ঠানের এমডি রিক হার্বাড কৃষিমন্ত্রী মো. আবদুর রাজ্জাককে এ কথা বলেন।
রিক হার্বাড জানান, তিনি ২০১১ সালে বান্দরবানের রুমা উপজেলায় কৃষকদের মাধ্যমে ৫০০টি কফি গাছের চারা দিয়ে কফি চাষ শুরু করেন। বর্তমানে সাজেক ভ্যালিসহ তাদের মোট গাছের সংখ্যা ১ লাখ ৫০ হাজার। গত দুই বছর ধরে তারা সম্পূর্ণ বাংলাদেশে উৎপাদিত এই কফি বাজারজাত এবং রপ্তানি করছে বলে জানান তিনি।
এ সময় কৃষিমন্ত্রী বলেন, আমরা কফির উৎপাদন বাড়ানোর জন্য কাজ করছি। এ জন্য আমরা কিছুসংখ্যক কৃষককে ভিয়েতনামে পাঠাব হাতেকলমে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য। আমরা কৃষিজাত পণ্য রপ্তানি করতে, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে চাই।
রিক বাংলাদেশের কফি রপ্তানির ক্ষেত্রে ডিউটি ফি কমানোর প্রস্তাব দিলে কৃষিমন্ত্রী জানান, কৃষিজাত পণ্যের ওপর সরকার প্রণোদনা দিয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে কফিকেও এর আওতায় আনা হবে। তিনি প্রতিষ্ঠানটিকে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। এ ছাড়া ভিয়েতনাম থেকে উন্নত জাতের কফির চারা এনে দেশে চাষ করা হবে বলেও জানান।

advertisement