advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে যুবক নিহত

গফরগাঁও প্রতিনিধি
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৭:১১ | আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৭:২২
নিহত হুমায়ুন কবীর
advertisement

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় বিরোধের জের ধরে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে হুমায়ুন কবীর (২৭) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন।

গতকাল বুধবার রাতে উপজেলার রাওনা ইউনিয়নের ধোপাঘাট বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত হুমায়ুন কবীর রাওনা পূর্বপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। আহতদের উদ্ধার করে ঢাকায় পঙ্গু হাসপাতাল এবং ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন, নিহতের বড়ভাই লিটন মিয়া (৫০), ছোটভাই জর্জ মিয়া (২৫), মা রাহেলা খাতুন (৬৮), প্রতিপক্ষ গ্রুপের আশরাফুল (৩৩) ও শরীফুল (৩৬)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাওনা ইউনিয়নের নামাপাড়া গ্রামের আশরাফুল, শরীফুল ও নয়ন মিয়ার সঙ্গে রাওনা পূর্বপাড়া গ্রামের নিহত হুমায়ুন কবীর ও তার ছোটভাই জর্জ মিয়ার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। বিরোধের জের ধরে বুধবার রাতে আশরাফুল, শরীফুল ও নয়ন মিয়াসহ ১০-১২ জন হুমায়ুন কবীরের বাড়িতে হামলা চালান। এ সময় হামলাকারীরা বৃদ্ধা রাহেলা খাতুনকে পিটিয়ে আহত করেন।

পরে হামলাকারীরা স্থানীয় ধোপাঘাট বাজারে এসে ইসমাইল হোসেনের চা স্টল ভাঙচুর করেন। খবর পেয়ে হুমায়ুন কবীর ও জর্জ মিয়া সংগঠিত হয়ে বাজারে অবস্থান নেন। কিছুক্ষণ পর দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এ সময় হুমায়ুন কবীর ও জর্জ মিয়াকে প্রতিপক্ষের লোকজন কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। তবে অবস্থার অবনতি হলে রাতেই হুমায়ুন কবীর ও জর্জ মিয়াকে ঢাকায় পঙ্গু হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক হুমায়ন কবীরকে মৃত ঘোষণা করেন।

গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অনুকূল সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ঘটনার পরপরই পুলিশ সেখানে পৌঁছায়। হামলাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।  

advertisement