advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দুর্নীতিবাজরা সরকারের বড় শত্রু

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ২৩:৪২
advertisement

যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেছেন, সরকার বিএনপি-জামায়াতকে দুর্বল করতে পেরেছে। এ জন্য বিরোধী দল এখন সরকারের জন্য বড় ঝুঁকি নয়। কিন্তু সরকারি বিভিন্ন দপ্তরে ঘাপটি মেরে থাকা দুর্নীতিবাজরাই সরকারের জন্য বড় ঝুঁকি।

এরাই সরকারের সব অর্জন মøান করতে দুর্নীতি নামক অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে। এ অবস্থায় সরকারের উচিত বিআরটিএসহ প্রতিটি সেক্টরের রন্ধ্রে রন্ধ্রে থাকা দুর্নীতির শেকড় উপড়ে ফেলা।

মোজাম্মেল হক বলেন, কিছু সরকারি কর্মকর্তার দুর্নীতির কারণেই বালিশকা-, পর্দাকাহিনি, টিন কেলেঙ্কারির মতো মহাদুর্নীতি তথ্য ফাঁস হচ্ছে। বিভিন্ন সেক্টর খুঁজলে এমন অসংখ্য দুর্নীতি-অরাজকতার চিত্র পাওয়া যাবে। তিনি বলেন, বিআরটিএতে দুর্নীতির চাপ যাত্রীদের ওপরও পড়ছে। কারণ একটি পরিবহন মালিক বিআরটিএতে গিয়ে ঘুষ দিলে সেই ঘুষের অর্থ পরোক্ষভাবে যাত্রীর পকেট থেকেই কাটা হচ্ছে। তাই জনবান্ধব সরকার হিসেবে দ্রুত দুর্নীতি বন্ধ করা উচিত।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ৫৭টি সার্কেল অফিসের মধ্যে অন্তত ১২টি অফিসেই দুর্নীতির প্রমাণ মিলেছে। বিআরটিএর নিজস্ব তদন্তে এ চিত্র উঠে আসে। এমন পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ৯টি সুপারিশ করেছে। সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে বিশেষ কমিটি গঠন করে বিআরটিএ।

advertisement